বিশ্বনাথের প্রথম অনলাইন পত্রিকা

রাগীবনগরে ‘কামাল বাজার যুব ফোরাম’র কার্যালয় উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক :: সিলেটের বিশ্বনাথের রাগীবনগরে ঐতিহ্যবাহী কামাল বাজার যুব ফোরাম এর কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে এই কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধন করেন যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী। এ উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি, জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রাগীব-রাবেয়া ডিগ্রি কলেজ’সজ অসংখ্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা, প্রখ্যাত দানবীর ও দেশবরেণ্য শিল্পপতি ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, কামাল বাজার যুব ফোরাম একটি ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। এ সংগঠনের মাধ্যমে বৃহত্তর কামাল বাজার এলাকায় অনেক উন্নয়ন কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করা হয়েছে। ঐতিহ্যবাহী এ সংগঠনকে এগিয়ে নিতে হলে সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন। তিনি বলেন, কামাল বাজার এলাকা এখন কোন দিন দিয়ে পিছিয়ে নেই। এখানে স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি, হাসপাতাল, স্পোর্টস একাডেমী প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। উন্নতির শিকড়ে পৌঁছতে হলে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে এবং সকলে মিলে মিশে দেশের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে হবে।
যুব ফোরামের নবগঠিত আহবায়ক কমিটির আহবায়ক সোলেমান খানের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব এনামুল হক মাক্কু ও সিনিয়র সদস্য আব্দুর রকিবের যৌথ পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, মোল্লাগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মো. মখন মিয়া, খাজাঞ্চী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তালুকদার মো. গিয়াস উদ্দিন, ছহিফাগঞ্জ এস.ডি মাদ্রাসা সুপার মাওলানা আব্দুর রউফ, স্টারলাইট কলেজের পরিচালক ড. নুরুল ইসলাম বাবুল, যুব ফোরামের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মতিন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন যুব ফোরামের আহবায়ক কমিটির সদস্য গুলজার আলী, সিদ্দিকুর রহমান খালেদ, সাবেক সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সচিব এমদাদুর রহমান মিলাদ ও মুরব্বি হাফিজ আশরাফ আলী। আলোচনা সভা শেষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মোল্লাগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ মো. মখন মিয়া বলেন, দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী শুধু বৃহত্তর কামাল বাজার এলাকার গর্ব নন, তিনি উপমহাদেশের গর্ব। তাঁর জন্ম হয়েছিল বলেই আজ এই এলাকার মেয়েরা উচ্চ শিক্ষা অর্জন করেতে পেরেছে। কামাল বাজারবাসীকে অনেক কিছুই দিয়েছেন ড. সৈয়দ রাগীব আলী। কামাল বাজার যুব ফোরামের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে। এই সংগঠনটি টিকে থাকলে গরীব-দুঃখি মেহনতি মানুষ সাহায্য পাবে।
খাজাঞ্চী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তালুকদার মো. গিয়াস উদ্দিন বলেন, খাজাঞ্চী ইউনিয়নে দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলীর জন্ম হয়েছে বলে আজ আমরা গর্বিত। সরকারের পাশাপাশি তিনি দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। বিশেষ করে শিক্ষা ও চিকিৎসা সেবায় তিনি নজিরবিহীন অবদান রেখেছেন।
স্টারলাইট কলেজের পরিচালক ড. নুরুল ইসলাম বাবুল বলেন, আল্লাহ অনেক মানুষকে সম্পদ দান করেন, কিন্ত তা মানুষের কল্যাণে ব্যায় করার মন মানসিকতা সবার হয় না। ড. সৈয়দ রাগীব আলীর মতো দানশীল ব্যক্তিকে সমাজে খুজে পাওয়া কঠিন। তিনি মানুষকে সেবা দানের জন্য ব্যয় করছেন নিজের কষ্টার্জিত অর্থ। তাই মানব সেবার অন্যতম খাত শিক্ষা ও চিকিৎসাকে গুরুত্ব দিয়ে তিনি স্কুল, কলেজ, ইউনিভার্সিটি ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেছেন। রাগীব নগরে ড. সৈয়দ রাগীব আলীর নামে একটি রিচার্স সেন্টার ও উন্মুক্ত পাঠাগার গড়ে তুলা এখন সময়ের দাবি। পাশাপাশি ঐতিহ্যবাহী কামাল বাজার যুব ফোরামকে যেভাবে তিনি পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন এবং করে যাচ্ছেন, তা যেন অব্যাহত থাকে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।
ছহিফাগঞ্জ এস.ডি মাদ্রাসা সুপার মাওলানা আব্দুর রউফ বলেন, দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলীর পৃষ্ঠপোষকতায় এলাকায় এমন কিছু অসম্ভব কাজকে সম্ভব করেছেন যুব ফোরামের নেতৃবৃন্দ। এই সংগঠনের মাধ্যমে এলাকায় অনেক উন্নয়ন কাজ করেছেন দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী। তিনি এলাকাকে একটি স্যাটেলাইট শহর ও শিক্ষা নগরী গড়ে তুলেছেন। এসব প্রতিষ্ঠান রক্ষার দায়িত্ব এলাকাবাসীর। তিনি ড. সৈয়দ রাগীব আলীর দীর্ঘায়ূ কামনা করেন।
সভাপতিত্বে বক্তব্যে যুব ফোরামের আহবায়ক সোলেমান খান বলেন, দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলীর জন্ম হয়েছিল বলেই আজ বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছে আমাদের এলাকা। আমরা পেয়েছি অনেক উন্নয়ন। এলাকার ছেলে মেয়েরা পেয়েছে উচ্চ শিক্ষার সুযোগ। জনাব রাগীব আলী মানবসেবার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন কামাল বাজার যুব ফোরাম। এই যুব ফোরামের ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমাদেরে ছেলেরা আজ ঐক্যবদ্ধ। নিজের স্বার্থে নয়, এই সমাজের কল্যাণের জন্য দানবীর ড. রাগীব আলীকে আরো বহুদিন বেঁচে থাকা প্রয়োজন। আল্লাহ যেন তাকে দীর্ঘদিন আমাদের মাঝে বাঁচিয়ে রাখেন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন- লিয়াকত আলী, কামাল উদ্দিন, সৈয়দ সাইফুর রহমান, লোকমান আহমদ, জালাল মিয়া, ইকরামুল হক, শফিক উদ্দিন, শাহিন মিয়া, সুহেল মিয়া, রুমন মিয়া, ইকরামুল কবির, আনোয়ার হোসেন, খায়রুল আমিন, বদরুদ্দিন নাহিদ, নুরুজ্জামান, মারজান আহমদ, মাসুক আহমদ, রাহাত রহমত, এনামুল গণি, দিলোয়ার হোসেন, আব্দুল মজিদ, বাবুল মিয়া, মাজেদ আহমদ, ইমরান মিয়া, সুরমান আলী, শামসুদ্দিন শুভ, শুহাইবুর রহমান, সাঈদ আলী, মাছুম আহমদ, জিলমান মিয়া, মুস্তাক আহমদ, আব্দুল মুকিত, সেলিম কিবরিয়া, সামাদ, সাব্বির প্রমুখ।


Endofcontent

Endofcontent
You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!