বিশ্বনাথের প্রথম অনলাইন পত্রিকা

সিলেটে পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারিদের মিছিল-প্রতিবাদ সমাবেশ

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রনালয়ের পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের অধীনস্থ মাঠ কর্মচারিরা হচ্ছেন পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক ও পরিবার কল্যাণ সহকারি। তারা তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারি হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হলেও অতি কৌশলে পরিবার কল্যাণ সহকারিদের ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারি হিসেবে ১৭তম গ্রেড দিয়ে পরিপত্র জারি করায় সিলেটের রাজ পথে ক্ষোভে অসন্তোষে মিছিল করেছে কর্মচারিরা। এ ক্ষোভ ও অসন্তোষ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। সিলেটের কর্মচারিরা এই পরিপত্র অতিসত্বর বাতিল জানিয়ে বাংলাদেশ পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারি সমিতি সিলেট বিভাগীয় কর্মীরা গত শুক্রবার দুপুরে সিলেট শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। মিছিলটি সিলেট সুরমা মার্কেট থেকে শুরু করে সিলেটের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিলেট জেলা বার হলে সমবেত হয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। উত্তেজিতকয়েক শতাধিক পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক ও পরিবার কল্যাণ সহকারিগণ আর কোর দাবি নাই পরিপত্র বাতিল চাই, নিয়োগবিধি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই শ্লোগানে মুখরিত করে তুলে। পরিবার পরিকল্পনা মাঠ কর্মচারি সমিতি সিলেট জেরা শাখার উদ্দ্যোগে আয়োজিত সিেেলট বিভাগে এই সমাবেশে রাশেদা খানম রিনার সভাপতিত্বে ও কয়েছ রশিদ দিলোয়ারের পরিচালনায় সমাবেশে জাতিসংঘে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ভ্যাকসিন হিরো পুরস্কারে ভূষিত করায় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানানো হয়।
বক্তারা বলেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের কর্মচারিরা মেঘ বৃষ্টি ঝড় তুফান উপেক্ষা করে মা ও শিশুদের টিকা দেয়ার কারনে বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জল হয়েছে। আমাদের কাজের সাফল্য স্বরুপ শেখ হাসিনাসহ সরকার প্রধান একাধিকবার বিশ্বে সম্মাননা পেয়েছেন। জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রনের কারনে বাংলাদেশ আজ পৃথিবীতে উন্নয়নের রোল মডেল। তাই আমাদের জনদরদি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মাঠ কর্মচারিদের নিয়োগ বিধি সহ সকল দাবি মেনে নেয়ার আহবান জানান। বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, কতিপয় লোক পরিবার কল্যাণ সহকারি ও পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শকদের সাফল্যজনক কার্যক্রম সরকারের উপর মহলে না জানিয়ে গোপন রেখে রিয়োগবিধিসহ ন্যায্য দাবিদাবা বাস্তবায়নে গড়িমশি করছেন। তারা অভিযোগ করে বলেন, পরিবার কল্যাণ সহকারিদের তৃতীয় শ্রেণী পদে নিয়োগ দেয়া হলেও এখন ৪র্থ শ্রেণীর ১৭তম গ্রেড দিয়ে পরিপত্র জারির মাধ্যমে সারা দেশে অতি কৌশলে শূন্যপদে লোক নিয়োগ বাণিজ্যের চেষ্ট করা হচ্ছে। অবিলম্বে তারা এই পরিপত্র বাতিলেন দাবি জানিয়ে বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ে প্রক্রিয়াধীন নিয়োগবিধি দ্রæত বাস্তবায়নে তারা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। কর্মচারিরা বলেন ৯৪ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারি শিক্ষক (এফডাবিøউএ) দের সমান এবং প্রধান শিক্ষকগণ (এফপিআই) দের সমান বেতন স্কেলে ছিলেন। তাই (এফপিআই) দের ১১তম গ্রেড এবং (এফডাবিøউএ) দের ১২ তম গ্রেড প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করেন। তারা ভলন্টিয়ার নিয়োগ দিয়ে পরিবার কল্যাণ সহকারিদের পদ বিলুপ্তির ষড়যন্ত্র বন্দের দাবিও জানান।
প্রতিবাদ মিছিল শেষে সিলেট জেলা আইনজীবি সমিতির হল রোমে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক মোঃ ফিরোজ আলী, আব্দুল বারী, ধিরাজ রায়, হোসেন আলী, পল্লব কান্ত দাস, হাফিজুর রহমান, নুর আহমদ, জহির আহমদ, চিত্ত রঞ্জন তালুকদার, পরিবার কল্যাণ সহকারীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ফৌজিয়া বেগম, পুষ্প রাণী, রিপা রাণী বিশ^াস, সিরিয়া বেগম, মাজেদা খানম, শিল্পী বেগম, নিয়তি রানী সিনহা, রেশফা আক্তার, নুরজাহান বেগম, বিউটি দে, সুমিতা সিংহ, রিপা দাস, মিনতি রাণী দাস, চামিলী বৈদ্য, মুন্না রাণী রায়, দিপালী রায়, জোছনা চক্রবর্ত্তী প্রমুখ। বক্তরা ৪র্থ শ্রেণীর জারিকৃত পরিপত্র বাতিল ও নিয়োগবিধি ৩০ অক্টোবরের মধ্যে বাস্তবায়ন করা না হলে দেশব্যাপী ধারাবাহিক আন্দোলনের হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। -বিজ্ঞপ্তি


Endofcontent
You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!