AM-ACCOUNTANCY-SERVICES-BBB

বিশ্বনাথে নালা বন্ধ করে পানি নিস্কাশনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অভিযোগ

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: মার্চ - ১৪ - ২০২২ | ৪: ৪৮ অপরাহ্ণ

143650

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার বৈরাগী বাজারে নালা বন্ধ করে পানি নিস্কাশনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি অভিযোগে পাওয়া গেছে। এ বিষয়য়ে উপজেলার কাটলীপাড়া গ্রামের মৃত তাহির আলীর পুত্র মজনু মিয়া বাদী হয়ে কাঠলীপাড়া গ্রামের মৃত হাজী সোনা মিয়ার পুত্র হাফিজ আব্দুছ ছালাম, মো. আলী মানিক, ফারুক মিয়া, আব্দুর রউফ (বকুল) এবং বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে সিলেটের জেলা প্রশাসক ও সড়ক ও জনপদ বিভাগকে অভিযুক্ত করে আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মোকদ্দমা নং-৪৪, তাং- ৮.০৩.২০২২ইং।

মামলায় বাদী মজনু মিয়ার অভিযোগ, তার বাড়ির উত্তর পার্শ্বের সীমানায় বিশ্বনাথ-রামপাশা-বৈরাগী বাজার সড়কের পাশে পানি নিস্কাশনের জন্য একটি নালা রয়েছে। এই নালার পাশে বাদী-বিবাদীগণসহ বিভিন্ন লোকের বসত বাড়ি, দোকান ও মার্কেট রয়েছে। ৩ ফুট প্রস্থের ওই নালার ৭২ ফুট বাদী তার নিজ খরচে পাকা করেন, কিছু অংশ সরকারি খরচে করা হয় এবং অবশিষ্ট অংশ কাঁচা নালা হিসেবে বিদ্যমান রয়েছে।

বাদী মজনু মিয়া গংরা কর্তৃক ২০০২ সালে আদালতে দায়েরকৃত একটি মামলায় (মামলা নং ৬০) আদালতকর্তৃক স্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ অমান্য করে অভিযুক্তরা নালাটি বন্ধ করে দেন। এতে বাদীসহ আশপাশের বাড়ি ঘরের পানি নিস্কাশনে মারাত্মক অসুবিদা সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি অভিযুক্ত হাফিজ আব্দুছ ছালাম গংরা তাদের রেষ্টুরেন্ট ও টয়লেটের ময়লা পানি পাইপ দ্বারা বাদীর বসতবাড়ির ভিতরের জায়গার উপর ফেলতে থাকায় বসবাসে অসুবিধা হচ্ছে এবং পরিবেশ দূষিত হয়ে জনস্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে। তাই নালায় সৃষ্ট পানি নিস্কাশনের সকল প্রতিবন্ধকতা অপসারণ করে নির্দেশ সূচক নিষেধাজ্ঞা প্রদানের জন্য আদালতে আবেদন জানান বাদী মজনু মিয়া।

এব্যাপারে অভিযুক্ত হাফিজ আব্দুছ ছালাম তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সঠিক নয় দাবি করে বলেন, রেষ্টুরেন্টসহ মার্কেটটি আমরা কয়েক বছর পূর্বে মজনু মিয়ার কাছ থেকে ক্রয় করেছি। ক্রয় করার পূর্বে যেভাবে নালা দিয়ে পানি নিস্কাশন হয়েছিলে এখনও সেইভাবে হচ্ছে। তাছাড়া অসমম্পুর্ণ ড্রেন আমি নিজ সম্পন্ন করতে চাই। এজন্য অনুমতি চেয়ে আমি সরকারের সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিক আবেদন করেছি।

আরো সংবাদ