AM-ACCOUNTANCY-SERVICES-BBB

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ আহত

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: আগস্ট - ১৭ - ২০২০ | ১১: ৪০ অপরাহ্ণ

4444

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: পূর্ব বিরোধের জের ধরে সিলেটের বিশ্বনাথে উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে রোববার বিকেলে আশিক মিয়া (৬০) নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধীর উপর প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের (প্রতিপক্ষ) নিজ বাড়ির সমানে হামলা করে করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় হামলাকারীরা আশিক মিয়ার সঙ্গে থাকা নগদ প্রায় ৪০ হাজার টাকা লুট করে নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

‘হামলা ও টাকা লুটের’ ঘটনায় রোববার রাতে গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত রাহাত উল্লাহর পুত্র শারীরিক প্রতিবন্ধী আশিক মিয়া বাদী হয়ে ৩ জনের নাম উল্লেখ ও আরো ৩ জনকে অজ্ঞাতনামা অভিযুক্ত করে রোববার রাতে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্তরা হলেন- গোবিন্দপুর গ্রামের রইছ আলীর পুত্র আবদুল কাইয়ুম (৪২), মৃত ইছব উল্লাহর পুত্র ছিদ্দেক আলী (৪৫), রইছ আলীর পুত্র আবদুল আলী (৩০)।

থানায় দায়ের করা বাদীর লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত ছিদ্দেক আলী এলাকায় একজন চিহ্নিত সন্ত্রাসী বলে এলাকায় পরিচিতি রয়েছে। আর অভিযুক্তদের সাথে পূর্ব থেকেই বাদী আশিক মিয়ার বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধের জের ধরে অভিযুক্তরা বাদীর ক্ষতি সাধনের অপচেষ্টা করে থাকে। এরই অংশ হিসেবে রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বাদী গোয়ালাবাজারস্থ তার বোনের বাড়ি থেকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথিমধ্যে অভিযুক্ত ছিদ্দেক আলীর বাড়ির সামনে তার (বাদী) বাদীর গতিরোধ করে অভিযুক্তরা তার (বাদী) উপর হামলা করে। হামলার সময় অভিযুক্ত আবদুল কাইয়ুম তার হাতে থাকা দা দিয়ে বাদীকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার (বাদী) মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত জখম হয়। অপর অভিযুক্ত ছিদ্দেক আলী রড দিয়ে বাদীর হাটুর নিচ আঘাত করে থেতলে জখম করে। এসময় অভিযুক্ত কাইয়ুম-ছিদ্দেক-আবদুল আরো ২/৩ জন অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে সাথে নিয়ে বাদীকে এলোপাতাড়িভাবে মারধর করে তার (বাদী) শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখন করে। হামলার এক পর্যায়ে অভিযুক্ত ছিদ্দেক আলী বাদী আশিক মিয়ার পকেটে থাকা নগদ ৪০ হাজার টাকা জোর করে লুট করে নিয়ে যায়। এসময় বাদীর শোর-চিৎকার শুনে স্বাক্ষীগণসহ এলাকার লোকজন বাদীকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

এঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরো সংবাদ