বিশ্বনাথের প্রথম অনলাইন পত্রিকা

ফুলতলী কামিল মাদরাসার শতবর্ষপূর্তি মাহফিল ২০ ফেব্রুয়ারি

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.)-এর স্মৃতিবিজড়িত ঐতিহ্যবাহী বাদেদেওরাইল ফুলতলী কামিল (এম.এ) মাদরাসার শতবর্ষপূর্তি মাহফিল আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ইং তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। এ উপলক্ষ্যে সাবেক শিক্ষার্থীদের নাম রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। মাদরাসা থেকে বিভিন্ন সময়ে যেসকল ছাত্র-ছাত্রী দাখিল, আলিম, ফাযিল ও কামিল পাশ করেছেন তারা আগামী ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ পর্যন্ত নির্ধারিত ফরম পূরণের মাধ্যমে নাম তালিকাভূক্ত করতে পারবেন। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশে বসবাসকারী সাবেক ছাত্রগণও নাম রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।
এ উপলক্ষে শনিবার (১৯ অক্টোবর) বিকাল ৩ টায় সিলেট নগরীর সোবহানীঘাটস্থ হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসা কনফারেন্স হলে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রহীম এর সভাপতিত্বে ও প্রভাষক মাওলানা নজমুল হুদা খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহ’র মুহতারাম সভাপতি মাওলানা হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী। তিনি বলেন, ফুলতলী মাদরাসা কেবল একটি গতানুগতিক প্রতিষ্ঠান নয়, এটি আদর্শ মানুষ গড়ার একটি কারখানা। সুতরাং এর শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানও গতানুগতিক নয় বরং ব্যতিক্রমী হতে হবে। এজন্য প্রয়োজন সকলের সহযোগিতা ও ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস। তিনি মাদরাসার সাবেক সকল ছাত্রকে নিজ উদ্যোগে নাম রেজিস্ট্রেশনসহ সার্বিক কার্যক্রমে সক্রিয় অংশগ্রহণের আহবান জানান।
মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আনজুমানে আল ইসলাহ’র যুগ্ম মহাসচিব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজ ও বাদেদেওরাইল ফুলতলী কামিল মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক মাওলানা হবিবুর রহমান। শতবর্ষপূর্তি মাহফিলের করণীয় সম্পর্কে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন শতবর্ষপূর্তি মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব ও মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি আখতার হোসাইন জাহেদ, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা বেলাল আহমদ, কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মাওলানা মুহিবুর রহমান, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূনুর রহমান লেখন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোজতবা হাসান চৌধুরী নোমান।
এতে মাদরাসার সাবেক ছাত্রদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মাথিউরা সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুল আলীম, চান্দগ্রাম সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, ইছামতি কামিল মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল মাওলানা শিহাবুর রহমান চৌধুরী, সোবহানীঘাট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা আবূ ছালেহ মুহাম্মদ কুতবুল আলম, স্কুল অব এক্সেলেন্স এর প্রিন্সিপাল মাওলানা গুফরান আহমদ চৌধুরী, সিলেট আল কুরআন মেমোরাইজিং সেন্টারের প্রিন্সিপাল মাওলানা ইমরান উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা কাজী কয়েছ খান, সিংচাপইড় আলিম মাদরাসার সহকারী অধ্যাপক মাওলানা তাজুল ইসলাম, মিয়ার বাজার আলিম মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা পিয়ার মাহমুদ, জকিগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা ফদ্বলুর রহমান, ইছামতি কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা আব্দুল লতিফ শামীম, ফুলতলী কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা মোহাম্মদ আলী, মাওলানা আব্দুল লতিফ, জালালপুর জালালিয়া কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা ইমদাদুর রহমান খান, মাওলানা কবিরুজ্জামান, মদনমোহন কলেজ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা এমদাদুল হক, তালামীযে ইসলামিয়ার সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি হাফিয মাওলানা নজীর আহমদ হেলাল, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মাওলানা রেদওয়ান আহমদ চৌধুরী, সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোস্তফা হাসান চৌধুরী গিলমান, জকিগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুস সবুর, কুলাউড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা ফজলুল হক খান শাহেদ, বিশ্বনাথ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা হাবিবুর রহমান লিটু, জকিগঞ্জ ফাযিল সিনিয়র মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা ফদ্বলুর রহমান, সোবহানীঘাট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা জইন উদ্দিন, মাওলানা জামাল আহমদ, গোয়ালাবাজার সিনিয়র মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা ওয়াছি উদ্দিন, দাউদপুর সিনিয়র মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা ইমাদ উদ্দিন, মৌলভীবাজার সরকারী মহিলা কলেজের প্রভাষক মাওলানা মুহিবুর রহমান, আটগ্রাম আমজদিয়া দাখিল মাদরাসার সহসুপার মাওলানা হাফিয জামিল আহমদ, ছাতক সুফিনগর দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা আব্দুছ ছালাম, সাংবাদিক মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, স্কুল অব এক্সেলেন্সের শিক্ষক মাওলানা জালাল উদ্দিন, মাওলানা ফুয়াদ আহমদ তায়েফ, সড়কের বাজার উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাওলানা আব্দুল আহাদ, নবীগঞ্জ আঞ্জব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মাওলানা মনসুর আহমদ আজাদ, এডভোকেট মাওলানা নুমানুর রহমান চৌধুরী, রাখালগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা কামরুল ইসলাম, নবীগঞ্জ নহরপুর দাখিল মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা ইব্রাহীম মিয়া ইউসুফ, মানিককোণা দাখিল মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা মাহবুবুর রহীম প্রমুখ।
অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় অফিস সম্পাদক আব্দুল মুহিত রাসেল, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান ফরহাদ, মাওলানা কাজী মনজুর আহমদ, মাওলানা মোশাহিদ আলী, মাওলানা কুতুব উদ্দিন খান, মাওলানা শামসুল কবির মিছবাহ, মাওলানা আব্দুর রব, মাওলানা শামীম আহমদ চৌধুরী, মাওলানা সেলিম আহমদ, মাওলানা সৈয়দ মিছবাহ আহমদ, মাওলানা ছাবির আহমদ চৌধুরী, মাওলানা দেলওয়ার হোসেন চৌধুরী, মাওলানা সৈয়দ মুন্তাসির আলী, মাওলানা আব্দুল আলিম, মাওলানা নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান, মাওলানা ইমরান উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা জয়নাল আবেদীন, মাওলানা মঈজ উদ্দিন চৌধুরী, মাওলানা সৈয়দ মওসুফ আহমদ, মাওলানা হামিদুর রহমান, মাওলানা মাহমুদ হোসেন চৌধুরী, হা. আব্দুস সালাম, মাওলানা ফয়েজ আহমদ চৌধুরী, মাওলানা আদনান আহমদ চৌধুরী, মাওলানা খন্দকার ওজীহুর রহমান আসাদ, মাওলানা আমিনুল হাসান চৌধুরী, মাওলানা ইমরান আহমদ, মাওলানা মোস্তাক আহমদ, মাওলানা মওদুদ আহমদ, মাওলানা মিছবাহ উদ্দিন, মাওলানা ছাফিউর রহমান প্রমুখ।


Endofcontent
You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!