বিশ্বনাথের প্রথম অনলাইন পত্রিকা

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১ : থানায় অভিযোগ দায়ের

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: প্রতিপক্ষের হামলায় চুনু মিয়া (৩৮) নামের এক ব্যক্তি আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি উপজেলার উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের পাঠাকইন গ্রামের ময়না মিয়ার পুত্র। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার আশুগঞ্জ বাজারে এ ঘটনাটি সংগঠিত হয়েছে। এব্যাপারে পাঠাকইন গ্রামের তবারক আলীকে প্রধান অভিযুক্ত করে প্রতিপক্ষের ৮ জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ প্রদান করেছেন চুনু মিয়া। অন্যান্যা অভিযুক্তরা হলেন মনোহরপুর গ্রামের মাসুম আহমদ, আজিজনগর গ্রামের মকদ্দছ আলী সুবল, ছত্তার মিয়া, গৌছ আলী, পাঠাকইন গ্রামের আজির উদ্দিন, গিয়াস উদ্দিন ও আজাদ মিয়া।
থানায় দায়েরকৃত এজাহারে তবারক আলীকে একজন বিখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী উল্লেখ করে চুনু মিয়া বলেন, তার বিরুদ্ধে এলাকার পক্ষ হইতে গত ১৬ অক্টোবর স্মারকলিপিতে স্বাক্ষর গ্রহন করেন তিনি (চুনু মিয়া)। উক্ত স্মারকলিপিতে স্বাক্ষর গ্রহন করার পর হইতে অভিযুক্তরা বাদীকে বিভিন্ন রকমের ভয়ভীতি ও হুমকি প্রদর্শন করে আসছেন।
চুনু মিয়া অভিযোগ করেন, তিনি আশুগঞ্জ আদর্শ স্কুল এন্ড কলেজের একজন দাতা সদস্য। কিছুদিন পূর্বে উক্ত প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে তবারক আলী তাকে টাকা বিনিময়ে ভোট দেওয়ার জন্য তিনি চুনু মিয়াকে বলেন। এতে চুনু মিয়া রাজি না হওয়ায় তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হুমকি দেন তবারক আলী। সেই থেকে অভিযুক্তদের সাথে তার বিরুধ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় আশুগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি গঠনের লক্ষ্যে তিনি আশুগঞ্জ বাজারস্থ একটি ফার্মেসীতে বৈঠক করছিলেন। তখন অভিযুক্ত মাসুম আহমদ তাকে ডাক দিয়ে দেলোয়ার হোসেনের চা দোকানে নিয়ে গেলে অভিযুক্তরা তাকে অশ্লীল ভাষায় গালি গালাজ করতে থাকেন। এসময় তিনি গালি গালাজ করার কারণ জিজ্ঞেস করা মাত্রই তবারক আলী হুকুম দিয়ে বলেন ‘শালার বেটারে প্রাণে মারিয়া ফেলো’। এই হুমুম পেয়ে অভিযুক্তরা বাদীর উপর হামলা করেন। এসময় অভিযুক্তদের ছুরিকাঘাতে বাদী চুনু মিয়ার কান ও হাতে রক্তাক্ত জখম হয়। আহত চুনু মিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা গ্রহন করেছেন।
আনিত অভিযোগ সঠিক নয় দাবি করে অভিযুক্ত মকদ্দছ আলী সুবল বলেন, বিএনপি নেতা চুনু মিয়া আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে আশুগঞ্জ বাজারে আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের নিয়ে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকলে আমরা এর কারণ জিজ্ঞেস করি। এসময় চুনু মিয়া ও তার সহযোগীরা আমাদের উপর হামলা করে। এতে ছাত্রলীগ নেতা মাসুম আহমদ আহত হয়েছে। এরপর তাবারক আলী ও আজাদ মিয়ার বাড়িতে তারা হামলা চালায়। এব্যাপারে তাদের পক্ষ থেকেও থানায় একটি অভিযোগ প্রদান করা হয়েছে বলে তিনি জানান।
থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের সত্যতা স্বীকার করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, তদন্ত সাক্ষেপে এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


Endofcontent
You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!