বিশ্বনাথের প্রথম অনলাইন পত্রিকা

লিডিং ইউনিভার্সিটিতে উৎসব মূখর পরিবেশে ড. রাগীব আলীর জন্মদিন পালন

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান দানবীর ড. রাগীব আলীর জন্মদিন নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উৎসব মূখর পরিবেশে পালন করলো লিডিং ইউনিভার্সিটি পরিবার। বৃহস্পতিবার সকালে রাগীব নগরস্থ লিডিং ইউনিভার্সিটির গ্যালারি-১ সম্মেলন কক্ষে দানবীর ড. রাগীব আলীর জন্মদিন পালন করা হয় ।

এ উপলক্ষে দানবীর ড. রাগীব আলীর জন্ম দিনের কেক কাটা হয়। পরে তাকে উপহার স্বরূপ ক্রেস্ট প্রদান ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোসহ তার জীবনীর উপর তথ্যচিত্র প্রদর্শন, কবিতা, গান পরিবেশন করা হয়।

দানবীর ড.রাগীব আলী জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে তাঁর ব্যক্তিগত অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, আজকের এ আয়োজনে আমি আনন্দবোধ করছি। । আমার সারা জীবনের অর্জন জনস্বার্থে ব্যয় করেছি।আমি এই ইউনিভার্সিটিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সেবামূলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি মানুষের কল্যাণের জন্য। কিন্তু আমি কোন সহযোগিতা পাইনি। এর বদলে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হয়েছি। যদি সহযোগিতা পেতাম তাহলে আরো এগিয়ে যেতে পারতাম। তিনি বলেন মনে আবেগ দুঃখ নিয়ে আছি। হয়তো এভাবেই পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবো। আমি সমাজকে দেয়ার জন্য সব করেছি। আরো অনেক কিছু করার ইচ্ছা আছে। আমার জন্য দোয়া করবেন। তিনি বলেন,ইউনিভার্সিটি আপনারা সবাই ভালো ভাবে চালাবেন। যাতে এর সুনাম বিশ্ব ব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, দানবীর ড. রাগীব আলীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা, দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করে বলেন, তাঁর জন্ম না হলে লিডিং ইউনিভার্সিটিসহ বাংলাদেশে অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্ম হতো না। তিনি এই রাগীবনগর গ্রামে জন্মগ্রহণ করে সুদুর লন্ডনে যান। এদেশের সমাজ সংস্কারে আত্মনিয়োগ করেন। শিক্ষার প্রসার এবং বিস্তারে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। তাঁর এই অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। নর্থসাউথ ইউনিভার্সিটি, এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটি এবং সিলেটের প্রথম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠা, প্রথম বেসরকারি মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ, বেগম রাবেয়া খাতুন চৌধুরী নার্সিং কলেজ সহ স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠায় তিনি যে অনন্য অবদান রাখেন তা এই সমাজে বিরল। লিডিং ইউনিভার্সিটি সারাদেশে একটি অনন্য নাম। এটি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলেও সুনাম লাভ করতে সক্ষম হয়েছে। ঐকান্তিক প্রচেষ্টার সহযোগী হয়ে এই প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন এটাই আমার প্রত্যাশা।

লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার বনমালী ভৌমিক দানবীর ড. রাগীব আলীকে জন্ম দিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, দানবীর ড. রাগীব আলী এই সমাজের কল্যাণের জন্য আরো বেঁচে থাকা দরকার। দানবীর ড. রাগীব আলী জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলে আজ রাগীব নগর শিক্ষা নগরীতে পরিণত হয়েছে। সিলেটে তার প্রতিষ্ঠিত অসংখ্য প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা লেখাপড়া করছে। দেশ ও সমাজকে আলোকিত করছে। তিনি দানবীর ড.রাগীব আলীর দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মানফাত জাবিন হকের সঞ্চালনায় জন্মদিনের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- লিডিং ইউনিভার্সিটির আধুনিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. এম. রকিব উদ্দিন, কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদের ডীন প্রফেসর নাসির উদ্দিন আহমেদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মোস্তাক আহমাদ দীন, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মো.রাশেদুল ইসলাম। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন-রেজিস্ট্রার মেজর (অব.) মো শাহ আলম পিএসসি।

আরো বক্তব্য রাখেন- ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক রুম্পা শারমীন,অফিস সহকারী জালাল উদ্দিন। অনুষ্ঠানে কবিতা পাঠ করেন-লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার বনমালী ভৌমিক, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক মো.রেজাউল করিম, গান পরিবেশন করেন-ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক আবু সাঈদ নাহিদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সবশেষে ইউনিভার্সিটি পরিবারের পক্ষ থেকে দানবীর ড. রাগীব আলীর জন্মদিনের কেক আনুষ্ঠানিকভাবে কাটা হয় এবং তাকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে লিডিং ইউনিভার্সিটির কালচারাল ক্লাবের উদ্যোগে প্রকাশিত ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।


Endofcontent

Endofcontent
You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!