নির্বাচনী মাঠে নেই মনোনয়ন বঞ্চিত দুই আ’লীগ নেতা : বিপাকে মহাজোট প্রার্থী

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: ডিসেম্বর - ২২ - ২০১৮ | ১: ০৫ পূর্বাহ্ণ | সংবাদটি 1488 বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক :: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে একটি আলোচিত আসন হচ্ছে সিলেট-২ বিশ^নাথ ও ওসমানীনগ আসন। মহাজোট থেকে আ’লীগের দুই নেতা মনোনয়ন বঞ্চিত আর বিএনপির ধানের শীষ প্রার্থীর মনোনয়ন স্থগিত হওয়ায় পুরো সিলেট জোড়ে আসনটি ব্যাপক আলোচনায় রয়েছে। পাশাপাশি মহাজোট থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রার্থী থাকলেও মাঠে নেই মনোনয়ন বঞ্চিত দুই আ’লীগ নেতা। এতে সেই আলোচনা আরও ঘনিভূত হয়ে ওঠেছে। মনোনয়ন বঞ্চিত এ দুই আ’লীগ নেতা হচ্ছেন সাবেক সংসদ সদস্য ও বর্তমান জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং যুক্তরাজ্য আ’লীগের যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। তারা মনোনয় বঞ্চিত হওয়ার পর থেকেই নির্বাচনকালিন সময়ে সিলেট-২ আসনের মাঠ ছাড়া রয়েছেন। মনোনয়নের পূর্ব মুহোর্ত পর্যন্ত তারা দু’জনই রাতদিন পুরো আসনের সর্বত্র ছিলেন নির্ঘুম প্রচারণায়। তাদের সাথে দুইভাগে বিভক্ত হয়ে নেতাকর্মীরাও ছিলেন সরব। এসকল নেতাকর্মীদের নিয়ে বিগত পাঁচটি বছর দুই নেতাকে মাঠে পাওয়া গেলেও মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ার পর থেকে তাদেরকে আর দেখা যায়নি। তাই এ দুই নেতাকে নিয়ে মাঠজোড়ে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা।
জানাযায়, মনোনয়ন নিয়ে সিলেট-২ আসনে মহাজোট থেকে শফিক চৌধুরী ও আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে প্রতিদ্বন্দীতায় ছিলেন জাপা নেতা এমপি ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী এহিয়া। সর্বশেষ মহাজোট থেকে এই আসনে মনোনয়ন পেয়ে যান এহিয়া চৌধুরী। তাই শফিকুর রহমান চৌধুরী ও আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর কর্মী সমর্থকরা মহাজোট প্রার্থী এহিয়া চৌধুরীর উপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন এবং মনোনয়ন বঞ্চিত এই দুই আওয়ামী লীগ নেতা অনেকটা অভিমান করে নির্বাচনী মাঠ ছেড়ে চলে যান। এই আসনে তারা অনেকটা নিশ্চুপ হয়ে নির্বাচন বিমুখ হয়ে পড়েন। এতে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে নানা জল্পনা কল্পনার সৃষ্টি হয়। অবশেষে সেই জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মনোনয়ন বঞ্চিত দুই নেতার কর্মী-সমর্থকরা মহাজোট প্রার্থী ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী (লাঙ্গল), স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রুহী) মুহিবুর রহমান (ডাব) ও আওয়ামীলীগ ঘরানার হিসেবে পরিচিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. এনামুল হক সরদার (সিংহ)’কে তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। আওয়ামীলীগ ঘরানার বিদ্রুহী এই দুই প্রার্থী থাকায় এবং মনোনয়ন বঞ্চিত দুই নেতার কর্মী-সমর্থকরা তাদের পক্ষে কাজ করায় অনেকটা বিপাকে রয়েছেন মহাজোটের প্রার্থী ইয়াহইয়া চৌধুরী।
এলাকায় জনশ্রুতি রয়েছে- আওয়ামীলীগের ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা মহাজোট প্রার্থী এহিয়া চৌধুরীর বিকল্প হিসেবে মুহিবুর রহমান ও এনামুল হক সরদারকে দেখছেন। তাই দুটি বলয়ের কর্মী ও সমর্থকদের অনেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহিব ও সরদারের পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। আর স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা অন্ধর মহল থেকে কর্মী সমর্থকদের দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন। তবে মহাজোটের প্রার্থী এহিয়া চৌধুরীকে ২য় বারের মতো এমপি নির্বাচিত করতে তার পক্ষে এবার শফিকুর রহমান চৌধুরী ও আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী কি ভূমিকা রাখবেন এবং তাদের অনুসারী বিশ্বনাথ-ওসমানীনগরের আওয়ামী লীগ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে মহাজোট প্রার্থীর পক্ষে কি ভূমিকা রাখবেন তা দেখার বিষয়।
এব্যাপারে শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, জেলার দায়িত্বে থাকায় সিলেট-১ আসন’সহ বিভিন্ন আসনে প্রচারণায় রয়েছেন। তাই অনেক সময় সিলেট-২ আসনে আসতে পারছেন না। তবে সিলেট-২ আসনে মহাজোটর পক্ষেই আছেন বলে তিনি জানান। এব্যাপারে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
স্বতন্ত্র প্রার্থী আলোচিত আওয়ামীলীগ নেতা মুহিবুর রহমান ৭০ দশকের শেষের দিকে বিশ্বনাথ উপজেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ পরবর্তীতে এরশাদ সরকারের আমলে জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-২ আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এরপর ২০০১ সালে অনুষ্ঠিত ৮ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টি থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ওই নির্বাচনের পর তিনি যোগদান করেন আওয়ামীলীগে। পরবর্তীতে ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনের আওয়ামী লীগ তথা মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন প্রাপ্তি নিয়ে বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী ও মুহিবুর রহমানের মধ্যে সৃষ্টি হয় দ্বন্ধ। তখন দুই নেতা পক্ষ অবলম্বন করে দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ। এক পর্যায়ে মুহিবুর রহমান দলীয় মনোনয়ন পেলেও শেষ পর্যন্ত শফিকুর রহমান চৌধুরী দলীয় ও মহাজোটের মনোনয়ন পেয়ে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী বর্তমান নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীকে ভোটের মাধ্যমে পরাজিত করে চমক সৃষ্টি করেন শফিক চৌধুরী। তখন সংসদ নির্বাচন থেকে সড়ে দাঁড়ান মুহিবুর রহমান। পরবর্তী উপজেলা নির্বাচনেও মুহিবুর রহমান প্রার্থী হলে ওই নির্বাচনে আওয়ামীগের সমর্থন দিয়ে এডভোকেট শাহ ফরিদ আহমদকে উপজেলা নির্বাচনে দাঁড় করান। নির্বাচনে মুহিবুর রহমান আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী এডভোকেট শাহ ফরিদ আহমদকে পরাজিত করে ২য় বারের মত উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। নির্বাচনের পর থেকে শফিকুর রহমান চৌধুরী ও মহিবুর রহমানের মধ্যে দন্ধ চরম আকার ধারন করে। এই দন্ধের জের ধরেই ২০১০ সালের জানুয়ারীতে মুহিবুর রহমান’সহ তার অনুসারী উপজেলা আওয়ামী লীগের ১৫জন নেতাকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। পরবর্তীতে মুহিবুর রহমান ছাড়া ১৪ নেতার বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়। ২০১৪ সালের ১০ম সংসদ নির্বাচেন ফের শফিক চৌধুরী ও মুহিবুর রহমান মনোনয়ন যুদ্ধে অবতির্ণ হলে বঞ্চিত হন দু’জনই। আসনটি চলে যায় জাতীয় পার্টির কব্জায়। মহাজোটের প্রার্থী হয়ে এমপি হন ইয়াহ্ইয়া চৌধুরী। ওই নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মুহিবুর রহমান বিদ্রুহী প্রার্থী হলেও তিনি পরাজিত হন। নির্বাচনের পর যুক্তরাজ্য চলে যান মুহিবুর রহমান। সেখানে গিয়ে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরীর সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে দলীয় কাজ শুরু করেন এবং সম্প্রতি দেশে এসে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামানের পক্ষে শুরু করে প্রচারণা। কিন্ত নির্বাচনে আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী মনোনয়ন না পাওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হন মুহিবুর রহমান। অপরদিকে, অধ্যক্ষ ড. এনামুল হক সরদার দলীয়ভাবে আওয়ামী লীগের কেউ না হলেও আওয়ামী ঘরানার ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। তিনি বিগত সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের প্রার্থী এডভোকেট লুৎফুর রহমানের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন।
এছাড়া ধানের শীষের প্রার্থী নিখোঁজ বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনার প্রার্থীতা আদালত স্থগিত ঘোষণা করায় এই আসনে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন খেলাফত মজলিসের যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ মুনতাছির আলী (দেয়াল ঘড়ি), গণফোরামের মুকাব্বির খান (উদীয়মান সূর্য্য), স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রব মল্লিক (বাস), ইসলামী আন্দোলনের মোঃ আমির উদ্দিন (হাত পাখা), এনপিপির মনোয়ার হোসাইন (আম) ও বিএনএফ এর মোশাহিদ খান (টেলিভিশন)।

আরো সংবাদ

‘পাঁচ পীরের মোকাম’র ‘রহস্যময়’ হিজল

বিশ্বনাথ উপজেলা আ’লীগের কার্যকরী কমিটির সভা

বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের

বিশ্বনাথে ইউকে’র জিপি সিস্টেমে চিকিৎসা সেবা চালু!

বিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

বিশ্বনাথে ভূমি সেবা সপ্তাহে সেবা ক্যাম্প চালু

বিশ্বনাথে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২১ সম্পন্ন

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত, থানায় ছাত্রলীগ কর্মীর অভিযোগ

ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন বিশ্বনাথ উপ-কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

বিশ্বনাথের সকল ইউপি সদস্যের সাথে ইউএনও’র মতবিনিময়

সর্বশেষ সংবাদ

‘পাঁচ পীরের মোকাম’র ‘রহস্যময়’ হিজল

বিশ্বনাথ উপজেলা আ’লীগের কার্যকরী কমিটির সভা

বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের

বিশ্বনাথে ইউকে’র জিপি সিস্টেমে চিকিৎসা সেবা চালু!

বিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

বিশ্বনাথে ভূমি সেবা সপ্তাহে সেবা ক্যাম্প চালু

বিশ্বনাথে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২১ সম্পন্ন

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত, থানায় ছাত্রলীগ কর্মীর অভিযোগ

ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন বিশ্বনাথ উপ-কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

বিশ্বনাথের সকল ইউপি সদস্যের সাথে ইউএনও’র মতবিনিময়