বিশ্বনাথবাসীর প্রত্যাশিত স্বপ্ন পূরণ হয়নি আজো

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: জুলাই - ৯ - ২০১৭ | ১: ৪৭ অপরাহ্ণ | সংবাদটি 1998 বার পঠিত

0000মোহাম্মদ নূরুল ইসলাম :: আজো পূরণ হয়নি বিশ্বনাথবাসীর বহুল প্রত্যাশিত স্বপ্ন। প্রবাসী অধ্যুষিত ও সিলেটের নিকটবর্তী উপজেলা হওয়া সত্ত্বেও এতকাল ধরে হয়নি বিশ্বনাথ পৌরসভা। বেশ কয়েক বছর আগে বিশ্বনাথকে পৌরসভা করার লক্ষ্যে স্থানীয় মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে সীমানা নির্ধারণ, প্রশাসনিক কার্যক্রমের আনুষাঙ্গিক রোডম্যাপ তৈরী সহ বিভিন্ন বিষয়াদি গুছিয়ে আনা হয়। এরপর ২০১৫ সালে পূর্বের প্রজ্ঞাপন বাতিল করে পুনরায় খসড়া প্রস্তাব তৈরী করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়। কিন্ত শেষ পর্যন্ত পৌরসভায় উন্নীত হওয়া থেকে বঞ্চিত থেকে গেল সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ একটি অঞ্চল বিশ্বনাথ।
স্থানীয় অভিজ্ঞমহল এ অঞ্চলের প্রতি রাজনৈতিক শুভ দৃষ্টি ও সদিচ্ছা না থাকার কারনে দীর্ঘ দিনের নাগরিক দাবিতে রূপান্তরিত হওয়ার পরও বিশ্বনাথ পৌরসভায় উন্নীত হয়নি বলে মনে করছেন। এছাড়া এ অঞ্চলে গ্যাস পৌছানোর দাবি ছিল দীর্ঘ দিন ধরে। কিন্ত আজ অবধি গ্যাস পৌছেনি।
১৯৯৬ সালে স্থানীয়রা বিশ্বনাথ পৌরসভা বাস্থবায়ন কমিটি গঠন করে আন্দোলন শুরু করেন। পৌরসভার দাবিতে এসময় একাধিক সভা-সমাবেশ সহ সরকারের উপর মহলে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পরপরই তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আযাদ বিশ্বনাথকে পৌরসভা করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই সময় স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় বিশ্বনাথকে পৌরসভায় রূপান্তর করার প্রাথমিক প্রক্রিয়া শুরু করে। ২০০০ সালেই চালানো হয় জরিপ। এতে পৌরসভার সীমানার মধ্যে পড়ে বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়নের ২৪টি গ্রাম। তৎকালীন সংসদ সদস্য শাহ আজিজুর রহমান এক অনুষ্ঠানে দৃঢ়চিত্তে বলেছিলেন এসরকারের আমলেই বিশ্বনাথকে পৌরসভায় রূপান্তর করা হবে। অবশ্য তার ঘোষণা পর্যন্তই থেমে পড়েছিল এটি।
২০০১ সালের সংসদ নির্বাচনে চারদলীয় জোটের মনোনিত প্রার্থী এম. ইলিয়াস আলী একাধিক জনসভায় পৌরসভাকে নির্বাচনী ইস্যু করে নির্বাচিত হলে পরবর্তীতে তিনিও এ প্রতিশ্রুতি অন্যদের মতো ভূলে যান। এসময় সিলেটের গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, জকিগঞ্জ, কানাইঘাট পৌরসভায় উন্নীত হলেও বিশ্বনাথ থেকে যায় অবহেলিত। অবশেষে ২০১৫ সালে পূর্বের প্রজ্ঞাপন বাতিল করে বর্তমান সংসদ সদস্য ইয়াহহিয়া চৌধুরী এহিয়ার অনুরোধে পুনরায় খসড়া প্রস্তাব তৈরী করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়। খসড়া প্রস্তাবে স্থানীয় সরকারের আইনে পৌরসভার জন্য যে প্রয়োজনীয় সুবিধা সমূহ থাকার কথা রয়েছে, তার প্রায় সবকয়টি প্রবাসী অধ্যুষিত প্রস্তাবিত বিশ্বনাথ পৌরসভায় বিদ্যমান রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়। কিন্ত স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব কাজ সম্পন্ন করে অনুমোদনের জন্য ফাইল উপযোগী করে পাঠানো হলেও ফাইলে ত্রুতি থাকায় শেষ পর্যন্ত বিশ্বনাথকে পৌরসভা ঘোষনা করা হয়নি বলে সূত্রে জানা যায়।
বিশ্বনাথ উপজেলা সদরে প্রায় ২ সহস্রাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, প্রায় ৫ সহস্রাধিক আবাসিক বাসা-বাড়ি রয়েছে। এছাড়া বিশ্বনাথবাজার থেকে প্রতি বছর উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ইজারা পাওয়া যায়। বিশ্বনাথ উপজেলা পৌরসভা স্থাপন করা হলে সরকার যেমন বছরে কোটি টাকার রাজস্ব পেত, তেমনি এ উপজেলার মানুষজনও পেতেন তাদের কাঙ্খিত উন্নয়নের ছোঁয়া। বিশ্বনাথে পৌরসভা না থাকার কারনে অপরিকল্পিতভাবে যত্রতত্র নির্মিত হচ্ছে বাসা-বাড়ি। বাসা-বাড়ি নির্মানে বিল্ডিং কোড না মানার কারনে বাড়ছে ভূমিকম্প আতংক। অপরিকল্পিতভাবে বাসা-বাড়ি নির্মাণের ফলে দিন দিন দেখা দিচ্ছে রাস্তাঘাট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংকট। বিশ্বনাথে পৌরসভা না থাকার কারনে ময়লা-আবর্জনা ফেলার ক্ষেত্রে নেই তাই কোন নিয়ম-কানুন। ফলে যত্রতত্র সৃষ্ঠি হচ্ছে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ। এতে যেমন পরিবেশ দূষিত হচ্ছে তেমনি মানুষের চলাফেরায়ও সুষ্ঠি হচ্ছে নানান সমস্যার। উপজেলা সদরে সোডিয়াম লাইট না থাকায় রাতে ভূতুরে পরিবেশের সৃষ্ঠি হয়। রাতের অন্ধকারে বৃদ্ধি পায় অপরাধ প্রবনতা।
ধনেজনে সিলেটের শীর্ষজনপদের একটি প্রবাসী অধ্যুষিত বিশ্বনাথ উপজেলা। জাতীয় সংসদের ২৩০ নং আসন হচ্ছে সিলেটে-২ হিসেবে পরিচিত বিশ্বনাথ-বালাগঞ্জ উপজেলা। বিশ্বনাথের চাইতে বালাগঞ্জ উপজেলা জনসংখ্যা, ভোটার ও ইউনিয়নের দিক দিয়ে বড় হলেও গত ১০টি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এর একক আধিপত্য দেখাতে পারেনি। এক্ষেত্রে বিশ্বনাথ সবদিক দিয়ে সব সময় এগিয়ে রয়েছে। সিলেট-২ আসনে ১০টি সংসদ নির্বাচনে বিশ্বনাথের ৫ জন প্রার্থী ৬ বার নিজ যোগ্যতাবলে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এবং এ সকল নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা দেশের অন্য অনেক সাধারন সংসদ সদস্যদের মত নন। তাদের প্রভাব, যোগ্যতা ও দল এবং দলীয় প্রধানের কাছে তাদের গ্রহন যোগ্যতাও ছিলো ব্যাপক। এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অনেক উন্নয়ন হলেও পৌরসভাসহ কিছু মৌলিক ও জনগুরুত্বপূর্ণ উন্নয়নের কাজ এখনও হয়নি। প্রতি বৎসর বিপুল সংখ্যক রাজস্ব প্রদানকারী উপজেলাবাসীর ও রেকর্ড পরিমাণ রেমিটেন্স প্রদানকারী প্রবাসী বিশ্বনাথীদের এনিয়ে ক্ষোভের অন্ত নেই। বিশ্বনাথে পৌরসভা বাস্তবায়নসহ গুরুত্বপূর্ণ দাবী সমূহ পুরনের প্রত্যাশায় আশায় বুক বেঁধে আছেন উপজেলাবাসী।

আরো সংবাদ

বিশ্বনাথে একদিনে ৫৪৩৮ শিক্ষার্থীকে করোনার ভ্যাকসিন প্রদান

খাজাঞ্চী ইউনিয়নে নৌকার গণজোয়ার

খাজাঞ্চীতে ‘নৌকা’র সমর্থনে উঠান বৈঠক

চাম্পারকান্দি মাদ্রাসায় প্রবাসী’র ৫০বস্তা সিমেন্ট প্রদান

বালাগঞ্জে দেওয়ান আব্দুর রহিম হাইস্কুলের ৭৭’ ব্যাচের পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

বিশ্বনাথের পশ্চিম শ্বাসরাম গ্রামে দুই ওলির বার্ষিক উরুস ২৫ জানুয়ারী

বিশ্বনাথের লামাকাজীতে নৌকা প্রতিকের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন

বিশ্বনাথে প্রয়াত হাজী তেরা মিয়া স্মরণে ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্প ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

নির্বাচিত হলে সম্মানী ভাতা এতিমদের মাঝে বন্টনের ঘোষণা দিলেন আরশ আলী গণি

খাজাঞ্চীতে নৌকা প্রতিকের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন

লামাকাজী-খাজাঞ্চী ইউপি নির্বাচনে ১২৭ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ

বিশ্বনাথে জাতীয় পার্টির শীতবস্ত্র বিতরণ

সর্বশেষ সংবাদ

বিশ্বনাথে একদিনে ৫৪৩৮ শিক্ষার্থীকে করোনার ভ্যাকসিন প্রদান

খাজাঞ্চী ইউনিয়নে নৌকার গণজোয়ার

খাজাঞ্চীতে ‘নৌকা’র সমর্থনে উঠান বৈঠক

চাম্পারকান্দি মাদ্রাসায় প্রবাসী’র ৫০বস্তা সিমেন্ট প্রদান

বালাগঞ্জে দেওয়ান আব্দুর রহিম হাইস্কুলের ৭৭’ ব্যাচের পুনর্মিলন অনুষ্ঠিত

বিশ্বনাথের পশ্চিম শ্বাসরাম গ্রামে দুই ওলির বার্ষিক উরুস ২৫ জানুয়ারী

বিশ্বনাথের লামাকাজীতে নৌকা প্রতিকের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন

বিশ্বনাথে প্রয়াত হাজী তেরা মিয়া স্মরণে ফ্রি চক্ষু চিকিৎসা ক্যাম্প ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

নির্বাচিত হলে সম্মানী ভাতা এতিমদের মাঝে বন্টনের ঘোষণা দিলেন আরশ আলী গণি

খাজাঞ্চীতে নৌকা প্রতিকের নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন

লামাকাজী-খাজাঞ্চী ইউপি নির্বাচনে ১২৭ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ

বিশ্বনাথে জাতীয় পার্টির শীতবস্ত্র বিতরণ