মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ড বহাল

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: মার্চ - ৮ - ২০১৬ | ৪: ০৯ অপরাহ্ণ | সংবাদটি 808 বার পঠিত

Mir_Qasim21457409517নিজস্ব প্রতিদেক :: মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীর মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। রায়ে তিনটি অভিযোগ থেকে তাকে অব্যাহতি এবং সাতটি অভিযোগে সাজা বহাল রাখা হয়েছে। আজ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চ এ রায় দেন। বেঞ্চের অপর চার সদস্য হলেন- বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মোহাম্মদ বজলুর রহমান। এর আগে, ১১ ও ১২ নম্বর অভিযোগে মীর কাসেম আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল। এর মধ্যে ১২ নং অভিযোগ থেকে তাকে খালাস দিলেও ১১ নং অভিযোগে তার মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়েছে। ২, ৩, ৭, ৯, ১০ ও ১৪ নং অভিযোগে দেয়া সাজাও বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। খালাস দেয়া হয়েছে ৪, ৬ ও ১২ নং অভিযোগ থেকে। মীর কাসেম আলীর রায়ের বিষয়টি আজ কার্যতালিকার ১ নম্বরে ছিল। তবে দুই মন্ত্রীর বিষয়ে প্রথমে আদেশ দেয়ায় তালিকা সংশোধন করে মীর কাসেমের আপিলের রায়কে ১ (এ) হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে রায় দেয়া হয়। ১৯৭১ সালে মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের লক্ষ্যে গঠিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ মীর কাসেম আলীকে মৃত্যুদণ্ড দেন ২০১৪ সালের ২ নভেম্বর। মীর কাসেম আলীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ থেকে মোট ১৪টি অভিযোগ আনা হয়। এর মধ্যে ১০টি অভিযোগে তাকে দোষী সাব্যস্ত করেন ট্রাইব্যুনাল। রায়ে দুটি অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। তার একটিতে মীর কাসেম আলীকে সর্বসম্মতভাবে ও আরেকটি অভিযোগে সংখ্যাগরিষ্ঠের ভিত্তিতে মৃত্যুদণ্ড দেন তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল। অপর আটটি অভিযোগে মীর কাসেম আলীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। ১৯৭১ সালের ৮ নভেম্বর থেকে স্বাধীনতার পূর্ব পর্যন্ত চট্টগ্রামের মহামায়া ডালিম হোটেলে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতাকামী লোকজনকে মীর কাসেম আলীর নেতৃত্বে নির্যাতন ও কয়েকজনকে হত্যার অভিযোগ আনা হয় রাষ্ট্রপক্ষ থেকে। মামলায় মীর কাসেম আলীর পক্ষ থেকে ১৯৭১ সালের সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর ও অন্যান্য বই পুস্তক ডকুমেন্ট আকারে আদালতে উপস্থাপন করে প্রমাণের চেষ্টা করা হয়েছে যে, মীর কাসেম আলী ১৯৭১ সালের ৬ নভেম্বরের পর থেকে ঢাকায় ছিলেন। তার বিরুদ্ধে যে সময়ে অপরাধ সংঘটনের অভিযোগ আনা হয়েছে সে সময় তিনি চট্টগ্রামে ছিলেন না এবং চট্টগ্রামে যানওনি। ২০১২ সালের ১৭ জুন মীর কাসেম আলীকে গ্রেফতার করা হয়।

আরো সংবাদ

সাংবাদিক শিপনের বোনের মৃত্যুতে বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের শোক

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেলেন বিশ্বনাথের আরও ৬৫ পরিবার

খানাখন্দে ভরপুর বিশ্বনাথ-খাজাঞ্চী-কামালবাজার সড়ক, জনদূর্ভোগ চরমে

বিশ্বনাথে ইভটিজিং করায় যুবকের কারাদণ্ড

বিশ্বনাথে বিএনপির দোয়া মাহফিল

বিশ্বনাথে ‘অপরিকল্পিত’ ড্রেন নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

বিশ্বনাথে শিল্পকলা একাডেমি বাস্তবায়নের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

‘পাঁচ পীরের মোকাম’র ‘রহস্যময়’ হিজল

বিশ্বনাথ উপজেলা আ’লীগের কার্যকরী কমিটির সভা

বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের

সর্বশেষ সংবাদ

সাংবাদিক শিপনের বোনের মৃত্যুতে বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবের শোক

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেলেন বিশ্বনাথের আরও ৬৫ পরিবার

খানাখন্দে ভরপুর বিশ্বনাথ-খাজাঞ্চী-কামালবাজার সড়ক, জনদূর্ভোগ চরমে

বিশ্বনাথে ইভটিজিং করায় যুবকের কারাদণ্ড

বিশ্বনাথে বিএনপির দোয়া মাহফিল

বিশ্বনাথে ‘অপরিকল্পিত’ ড্রেন নির্মাণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

বিশ্বনাথে শিল্পকলা একাডেমি বাস্তবায়নের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান

‘পাঁচ পীরের মোকাম’র ‘রহস্যময়’ হিজল

বিশ্বনাথ উপজেলা আ’লীগের কার্যকরী কমিটির সভা

বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের