বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: জানুয়ারি - ৩১ - ২০১৬ | ৬: ২০ অপরাহ্ণ | সংবাদটি 1054 বার পঠিত

31নিজস্ব প্রতিবেদক ::সিলেটের বিশ্বনাথে পুলিশী বেষ্টনীর মধ্যে দিয়ে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কোরাম সংকঠনের কারণে প্রায় দশ মিনিটের মধ্যে সভা শেষ করে উপজেলা পরিষদ এলাকা ত্যাগ করেন পরিষদের চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী। সভা শুরুর পূর্বে পরিষদের মিলনায়ন ঘিরেই পুলিশের অবস্থান থাকলেও, সভা শুরুর সাথে সাথে উপজেলা পরিষদ এলাকার গূরুত্বপূর্ন পয়েন্টে অবস্থান নেয় থানা পুলিশ।
রোববার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় পরিষদের ১৪ সদস্যের মধ্যে চেয়ারম্যানসহ মাত্র ৫ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। কোরাম সংকঠ দেখা দেওয়া সভাটি মুলতবি ঘোষণা করা হয়। সভায় উপস্থিত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ আসাদুল হক, অলংকারী ইউপি চেয়ারম্যান লিলু মিয়া, দেওকলস ইউপি চেয়ারম্যান তাহিদ মিয়া, সংরক্ষিত আসনে মহিলা সদস্যা নূরুন্নাহার ইয়াসমিন, নাজমা বেগম,  কৃষি কর্মকর্তা আলীনুর রহমান, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মাহবুব আলম সরকার, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সোলায়েমান হোসাইনসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা।
অন্যদিকে সভায় অনুপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ-নুর উদ্দিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেগম স্বপ্না শাহিন, বিশ্বনাথ সদর ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন, লামাকাজী ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন ধলা মিয়া, খাজাঞ্চী ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন সিদ্দিকী, রামাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার খান, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্বাস আলী, দশঘর ইউপি চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) হাবিবুর রহমান ছাতির।

সাংবাদিকদের কাছে সভায় উপজেলা পরিষদের সদস্যদের অনুপস্থিতিতে কোরাম সংকঠ হওয়ার সত্যতা স্বীকার করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ আসাদুল হক।
উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেগম স্বপ্না শাহিন বলেন, গত ২৬ নভেম্বর চেয়ারম্যান- ভাইস চেয়ারম্যান সংঘর্ষে লিপ্ত হওয়ার সময় আমি ছিলাম অসহায়। পরবর্তিতেও কেউ আমার কোন খবর নেননি। আজ (রোববার) যদি আবার তাঁরা সংঘর্ষে লিপ্ত হতেন তবে আমাকে কে নিরাপত্তা দিত। নিরাপত্তার অভাবের কারণেই আমি সভায় উপস্থিত হইনি।
উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ-নুর উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, আমার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে একটি অভিযোগ থাকায় আমি সভায় উপস্থিত হইনি। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, অলংকারী ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যানের সিও’র বিরুদ্ধে থানায় একই ধরনের অভিযোগ থাকার পরও কিভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও থানা পুলিশের পাহাড়ায় সভা হয় তা আমি জানিনা। আর বুঝতেও পারছি না এটাকি আইনের বৈধ কোন পন্থায় পড়ে কিনা।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বিশ্বনাথ থানার এসআই তোফাজ্জুল হোসেন বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরীর উপর দায়ের করা মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় গত ৩০ জানুয়ারী থানা থেকে মামলাটির ফাইনাল রির্পোট আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে|

আরো সংবাদ

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের

বিশ্বনাথে ইউকে’র জিপি সিস্টেমে চিকিৎসা সেবা চালু!

বিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

বিশ্বনাথে ভূমি সেবা সপ্তাহে সেবা ক্যাম্প চালু

বিশ্বনাথে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২১ সম্পন্ন

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত, থানায় ছাত্রলীগ কর্মীর অভিযোগ

ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন বিশ্বনাথ উপ-কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

বিশ্বনাথের সকল ইউপি সদস্যের সাথে ইউএনও’র মতবিনিময়

বিশ্বনাথে দুই শিশুকে বলাৎকার করে ভিডিও ধারণ, আটক ২

বিশ্বনাথ প্রেস ক্লাবের সভা : নতুন সদস্য আহবান

বিশ্বনাথে অনুর্ধ্ব-১৭ বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন

সর্বশেষ সংবাদ

ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল চুরি

বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের উপর হামলার অভিযোগে মামলা দায়ের

বিশ্বনাথে ইউকে’র জিপি সিস্টেমে চিকিৎসা সেবা চালু!

বিশ্বনাথে আশ্রয়ণ প্রকল্প পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক

বিশ্বনাথে ভূমি সেবা সপ্তাহে সেবা ক্যাম্প চালু

বিশ্বনাথে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী-২০২১ সম্পন্ন

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত, থানায় ছাত্রলীগ কর্মীর অভিযোগ

ট্রাক পিকআপ কাভার্ডভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন বিশ্বনাথ উপ-কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

বিশ্বনাথের সকল ইউপি সদস্যের সাথে ইউএনও’র মতবিনিময়

বিশ্বনাথে দুই শিশুকে বলাৎকার করে ভিডিও ধারণ, আটক ২

বিশ্বনাথ প্রেস ক্লাবের সভা : নতুন সদস্য আহবান

বিশ্বনাথে অনুর্ধ্ব-১৭ বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন