পলো বাওয়া উৎসব: ঝপ ঝপ শব্দে মুখরিত বিশ্বনাথের গোয়াহরি বিল

বিশ্বনাথ নিউজ ২৪ ডট কম :: জানুয়ারি - ১৪ - ২০১৬ | ১২: ৩৪ অপরাহ্ণ | সংবাদটি 1102 বার পঠিত

222তজম্মুল আলী রাজু ও নূর উদ্দিন :: বিশ্বনাথের পল্লীতে বিপুল উৎসাহ-উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে বার্ষিক “পলো বাওয়া উৎসব” পালিত হয়েছে। বার্ষিক এই “পলো বাওয়া উৎসব” বৃহস্পতিবার উপজেলার দৌলতপুর ইউনিয়নের গোয়াহরি গ্রামের দক্ষিণের (বড়) বিলে অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশগ্রহন করেন গ্রামের কয়েক শতাধিক মানুষ। এ বছর মাছের সংখ্যা কম, বিলে অধিক পানি ও কচুরিপানা থাকায় খালি হাতে ঘরে ফিরতে হয়েছে অনেককেই। শিকারকৃত মাছের মধ্যে ছিল বোয়াল, ব্রিগেড, মিরকা, বাউশসহ ভিবিন্ন জাতের মাছ বেশী ছিল।
এদিকে
গোয়াহরি গ্রামের ঐহিত্য অনুযায়ী প্রতি বছরের মাঘ মাসের পহেলা তারিখ এই পলো বাওয়া উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। “পলো বাওয়া উৎসবকে” কেন্দ্র করে গোয়াহরি গ্রামে গত কয়েকদিন ধরে উৎসবের আমেজ রিবাজ করছিল।
পলো বাওয়া এই উৎসবে অংশ নিতে সকাল ৮টা থেকে গোয়াহরি গ্রামের সৌখিন মানুষ বিলের পারে এসে জমায়েত হতে থাকেন। বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিলের পারে লোকসমাগম বাড়তে থাকে। পূর্ব নির্ধারিত সময় সকাল সাড়ে ১০টা হওয়ার সাথে সাথে সবাই এক সাথে বিলে নেমে শুরু করেন পলো বাওয়া। শুরু হয় ঝপ ঝপ পলো বাওয়া। প্রায় ২ ঘন্ঠাব্যাপী এ “পলো বাওয়া উৎসবে” গোয়াহরি গ্রামের সব বয়সী পুরুয় অংশ নেন।
সরেজমিনে গোয়াহরি বিলে গিয়ে দেখা যায়, মাছ শিকার করতে নিজ নিজ পলো নিয়ে বিলের উপর ঝাপিয়ে পড়েন লোকজন। যাদের পলো নেই তারা মাছ ধরার ছোট ছোট বিভিন্ন জাল নিয়ে মাছ শিখারে ব্যস্ত সময় কাটান। এসময় মাছ ধরার এ দৃশ্যটি উপভোগ করতে বিলের পারে ছোট ছোট শিশু থেকে বৃদ্ধ বয়সের লোকজন, দূর থেকে আসা অনেকের আত্বীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবকে দায়িড়ে থাকতে দেখা যায়।
প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ছেলে বুড়ো মিলিয়ে প্রায় ৩ শতাধিক লোক পলো বাওয়া উৎসবে অংশগ্রহন করেন। বিল থেকে অন্যান্য বছরের তুলনায় মাছ শিকার হয়েছে কম।
গোয়াহরি গ্রামের সুনা উল্লাহ বলেন, পলো বাওয়া উৎসব আমাদের গ্রামের একটি ঐতিহ্য। আমার কাছে পলো বাওয়া উৎসব খুব মজার বিষয়। শত ব্যস্ততার মধ্যেও আমি এ উৎসবে আসি। আমাদের গ্রামবাসী যুগ যুগ ধরে এই উৎসব পালন করে আসছেন।
মাদ্রাসা শিক্ষক গোয়াহরি গ্রামের মাওলানা ইউনূছ আহমদ বলেন, আমি একটি মাদ্রাসার শিক্ষক ও একটি মসজিদের খতিব। এই মাছ ধরায় অংশ নিতে পেরেছি তাই আমার খুব আনন্দ লাগছে। আমি পলো দিয়ে প্রায় ৩টি বড় মাছ শিকার করতে সক্ষম হয়েছি।
গোয়াহরি গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী হাজী মনোহর খান বলেন, আমি পলো বাওয়ায় অংশগ্রহন করতে যুক্তরাজ্য থেকে দেশে এসেছি। পলো দিয়ে মাছ শিকার একটি মজার বিষয়।

আরো সংবাদ

বিশ্বনাথ এইট ইউকে’র অর্থায়নে গোস্ত, নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

সিলেট চেম্বারস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ’র পক্ষ থেকে বিশ্বনাথে মাস্ক বিতরণ

যেভাবে ড্রাইভিং ছেড়ে ভূয়া সাংবাদিকতার পথ বেছে নেয় আনোয়ার

সিলেটে আরো ১১ মৃত্যুর দিনে শনাক্ত ৩৩৯

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ হতে বিশ্বনাথে ২ শতাধিক পরিবারের মধ্যে অর্থ বিতরণ

করোনার সময়েও দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড থেমে নেই -শফিক চৌধুরী

লাইভে অপপ্রচার, বিশ্বনাথে ভূয়া সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জিডি

‘মনে তোমার অনেক রঙ’ ও ‘আমার শাস্থি চাই’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

বিশ্বনাথ পৌর শহরে দিনদুপুরে দুটি বাসায় দুর্ধর্ষ চুরি

বিশ্বনাথে ২৩ বোতল মদসহ মাদক কারবারি আটক

অনন্য প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন বিশ্বনাথের ‘রাজ-রাজেশ্বরী মন্দির’

ব্রিটেনে তাহমিদের ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অর্জন

সর্বশেষ সংবাদ

বিশ্বনাথ এইট ইউকে’র অর্থায়নে গোস্ত, নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

সিলেট চেম্বারস অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ’র পক্ষ থেকে বিশ্বনাথে মাস্ক বিতরণ

যেভাবে ড্রাইভিং ছেড়ে ভূয়া সাংবাদিকতার পথ বেছে নেয় আনোয়ার

সিলেটে আরো ১১ মৃত্যুর দিনে শনাক্ত ৩৩৯

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ হতে বিশ্বনাথে ২ শতাধিক পরিবারের মধ্যে অর্থ বিতরণ

করোনার সময়েও দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড থেমে নেই -শফিক চৌধুরী

লাইভে অপপ্রচার, বিশ্বনাথে ভূয়া সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জিডি

‘মনে তোমার অনেক রঙ’ ও ‘আমার শাস্থি চাই’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

বিশ্বনাথ পৌর শহরে দিনদুপুরে দুটি বাসায় দুর্ধর্ষ চুরি

বিশ্বনাথে ২৩ বোতল মদসহ মাদক কারবারি আটক

অনন্য প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন বিশ্বনাথের ‘রাজ-রাজেশ্বরী মন্দির’

ব্রিটেনে তাহমিদের ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি অর্জন