মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথে আ’লীগ সমর্থিত জুলিয়া বেগম মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত  » «   বিশ্বনাথে আল-ইসলাহ’র হাবিবুর রহমান ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত  » «   বিশ্বনাথে আ’লীগের নুনু মিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত  » «   ইলিয়াস আলীর কেন্দ্রে ‘নৌকা’র বিজয়  » «   বিশ্বনাথে প্রিজাইডিং অফিসারের হার্ড অ‌্যাটাক  » «   বিশ্বনাথে ‘নৌকা ও কাপ-পিরিছ’র সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি : যুবলীগ নেতা আহত  » «   বিশ্বনাথে শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন  » «   বিশ্বনাথে মাইক্রোবাসের চাপায় পথচারী বৃদ্ধা নিহত  » «   বিশ্বনাথে চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে ত্রিমুখী  » «   বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস আজ  » «   বিশ্বনাথে কিশোরীকে অপহরণ, অতপর উদ্ধার : ১ সন্তানের জনক গ্রেফতার  » «   বিশ্বনাথে প্রতিপক্ষের হামলায় দুই ভাই আহত  » «   উন্নয়ন পেতে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করুণ -শফিক চৌধুরী  » «   খাজাঞ্চী ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারে অগ্নিকান্ড  » «   বিশ্বনাথে ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন  » «  

মিছবাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা -ইসি সদস্যদের বিবৃতি

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: বিশ্বনাথ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্টের স্বার্থবিরোধী ও অর্থ সংক্রান্ত অনিয়মের অভিযোগ এনে ট্রাস্টের সেক্রেটারি মিছবাহ উদ্দিনকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সংবাদে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ট্রাস্টের সদ্য সাবেক ইসি কমিটির ৫ সদস্য। তারা এক বিবৃতিতে বলেছেন-গত ৫ ফেব্রুয়ারী বিশ্বনাথ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্টের দুই বছর মেয়াদী কমিটির মেয়াদপূর্ণ হয়েছে। সংবিধানের ধারা মতে এই কমিটির আর কোন বৈধতা নেই। সভাপতির নেতৃত্বাধীন এই কমিটি দ্বি-বার্ষিক সভার আয়োজন ও নির্বাচন দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। তাছাড়া ট্রাস্টের সংবিধানে কোথাও সাধারণ সম্পাদককে কার্যকরি কমিটি অব্যাহতি দেওয়ার ক্ষমতা দেয়া হয়নি। একমাত্র সাধারণ সভায় ও বা বিশেষ সভা আহবান করে বেশিরভাগ ট্রাস্টিদের মতামতের ভিত্তিতে অব্যাহতি দেওয়ার ক্ষমতা দেয়া হয়েছে।
তারা বলেন-বাংলাদেশে ট্রাস্টের নামে সরকারী কোন নিবন্ধন না থাকায় সরকারী আইনী বাধ্যবাদকতার কারনে ব্যাংকে রক্ষিত কোটি কোটি টাকা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ায় ২০১৫ সালে বিশ্বনাথ এডুকেশন ট্রাস্টের রেজিস্ট্রেশন হয়।
যে সময় ট্রাস্ট রেজিস্ট্রেশন করা হয় তখনকার সভাপতি মির্জা আসহাব বেগ, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম দেশে অবস্থান করে ট্রাস্ট রেজিস্ট্রেশনের স্বার্থে এই অর্থ রেজিস্ট্রারী ক্ষাতে ব্যয় করেন।
এই সময় তৎকালিন ট্রেজারার বর্তমান সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিসবাহ উদ্দীন বাংলাদেশে ছিলেন না। পরবর্তীতে এই ব্যয় নিয়ে ট্রাস্টে আলোচনা সমালোচনার সৃস্টি হলে বিশেষ সভা আহবান করে প্রবীন ট্রাস্টি পংকি খানকে প্রধান করে একটি মিডিয়েশন টিম গঠন করা হয়। পরবর্তীতে তা বিজিএমে গিয়ে উপস্থিত ট্রাস্টিদের সামনে সমাধান হয় এবং একটি সুষ্টু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে মিসবাহ উদ্দিন সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন। ঐ নির্বাচনের সময়ও মিসবাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে একই মিথ্যা অভিযোগ আনা হলেও ট্রাস্টিগন তাকে নির্বাচিত করেন।
কিন্তু নির্বাচনের পরে সভাপতির নেতৃত্বে কার্যকরি কমিটির একটি অংশ প্রথম থেকেই সাধারণ সম্পাদকসহ কিছু কার্যকরি কমিটির সদস্যদের অহযোগিতা করতে থাকেন। ফলে গত ২ বছর টানাপুড়নের মধ্যেই শেষ হয় কমিটির মেয়াদ।
গত ৫ ফেব্রুয়ারী এই কমিটির মেয়াদ শেষ হলেও এই কমিটি সংবিধান মোতাবেক তাদের সময় বৃদ্ধি না করেই অবৈধভাবে ক্ষমতা আছে বলে মনে করেন তারা। তারা অবিলম্বে মিডিয়েশন টিমের মাধ্যমে নতুন কমিটির জন্য নির্বাচন আহবানের পক্ষে মতদেন। তারা বলেন-মিসবাহ উদ্দিন বর্তমানে বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্রভাবে চেয়ারম্যানে পদে নির্বাচন করছেন। এই সুযোগে তার বিরুদ্ধে ট্রাস্টের আর্থিক ক্ষতিসাধনের মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। তা সম্পূর্ণ অন্যায় বলে বিবৃতি দাতাগন মনে করেন। ট্রাস্টের সকল সমস্যার সমাধান ও কল্যানের স্বার্থে মেয়াদ উর্ত্তীন এই কমিটির কোন ধরনের বিবৃতি প্রকাশ না করতে সকল মিডিয়ার প্রতি আহবান জানান তারা। তারা বলেন-বর্তমানে বিশ্বনাথ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্টে সাংবিধানিক শূণ্যতা বিরাজ করছে। এই অবস্থায় মিডিয়েশন কমিটি ও সিনিয়র ট্রাস্টিদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।
বিবৃতিদাতাগন হচ্ছেন (মেয়াদ উর্ত্তীণ কমিটির) সদ্য সাবেক সহ-সভাপতি সাজ্জাদুর রহমান, সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন, সদ্য সাবেক সহ-ট্রেজারার আব্দুল ওদুদ শাহেল, সদ্য সাবেক ইসি মেম্বার ফারুক মিয়া, মোহাম্মদ কবির মিয়া।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ