সিসিক নির্বাচনে হিসাবনিকাশ পাল্টে দিতে পারেন নতুন ভোটাররা
বুধবার, ১৫ আগষ্ট, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথে রামপাশা-বৈরাগী-সিংগেরকাছ বাজার সড়কের বেহাল দশা : জনদূর্ভোগ  » «   বিশ্বনাথে জাতীয় শোক দিবসে পুষ্পস্তবক অর্পন ও র‌্যালী  » «   শোকাবহ ১৫ আগস্ট আজ  » «   বিশ্বনাথে রাস্তায় গেইট নির্মাণ নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধ  » «   বিশ্বনাথ ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে প্রশাসনিক অনুমোদন  » «   শিক্ষা প্রতিষ্টানে মাদক বিরোধী কমিটির আলোচনা সভা  » «   বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা  » «   বিশ্বনাথে ব্রাক এর ‘উপজেলা মাইগ্রেশন ফোরাম মিটিং’ অনুষ্ঠিত  » «   দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে আ’লীগের বিকল্প নেই -শফিক চৌধুরী  » «   পবিত্র হজ্ব পালন করতে স্বপরিবারে সৌদি আরব গেলেন মিছবাহ উদ্দিন  » «   বিশ্বনাথে উদ্ধারকৃত ২২টি গরু সনাক্ত করতে থানায় জনতার ভিড়  » «   সিংগেরকাছ পাবলিক বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজে নবীণ বরণ  » «   বিশ্বনাথে জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা  » «   বিশ্বনাথে স্বামীর হাতুড়ির আঘাতে স্ত্রী নিহতের ঘটনায় মামলা দায়ের  » «   বিশ্বনাথে ‘পরিচ্ছন্ন ও সবুজ জনপদ’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক  » «  

সিসিক নির্বাচনে হিসাবনিকাশ পাল্টে দিতে পারেন নতুন ভোটাররা

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার নতুন ভোটার হয়েছেন ৩০ হাজার ৬৮৬ জন। এই নতুন ভোটাররাই পাল্টে দিতে পারেন জয়-পরাজয়ের হিসাবনিকাশ। বিশেষ করে মেয়র পদে তাদের বেশির ভাগ ভোট যিনি টানতে পারবেন জয়ের সম্ভাবনা তারই বেশি! এমনটি মনে করেন অনেকেই। তাদের ভাষ্য, নতুন ভোটারদের প্রায় সবারই বয়স কম। প্রথম ভোটার হওয়ায় তারা ব্যাপক উৎসাহে ভোট দিতে যান। এবার নতুন ভোটারদের ৯০ শতাংশ ভোট কাস্ট হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
সিলেট সিটিতে এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন সাতজন। তাদের পাঁচজন দলীয়, একজন স্বতন্ত্র ও একজন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। গত নির্র্বাচনে ১৮ দল ও ১৪ দলের প্রার্থীর মধ্যে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। বিজয়ী হন ১৮ দলের প্রার্থী। এবার বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলের কোনো একক প্রার্থী নেই। সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে এবারো আওয়ামী লীগ মনোনীত করেছে। পক্ষান্তরে ২০ দলের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীকে লড়ছেন সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও টেবিল ঘড়ি প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন নগর জামায়াতের আমির অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। আরিফকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষুব্ধ নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম নাগরিক কমিটির ব্যানারে বাসগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে প্রার্থী হওয়ায় গত মঙ্গলবার তাকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
সিলেট নগরীতে সাংগঠনিকভাবে বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ শক্তিশালী। তবে সমর্থক সংখ্যার দিক দিয়ে এগিয়ে বিএনপি। ব্যক্তিগতভাবে জনপ্রিয় থাকার কারণে অতীতে টানা দুইবার মেয়র ছিলেন আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। দুই দশকেরও বেশি সময় থেকে সিলেট সিটিতে জামায়াত পৃথকভাবে নির্বাচনে অংশ নেয়নি। সাংগঠনিকভাবে বিএনপির চেয়ে শক্তিশালী হলেও সিলেটে জামায়াতের দলীয় ভোট কত! এ নিয়ে নানা মহলে রীতিমতো গবেষণা চলছে। তিন দলেরই প্রার্থী আশাবাদী তারা বিজয়ী হবেন। তবে নির্বাচনে দলীয় ভোট ছাড়াও প্রার্থীদের ব্যক্তিগত ইমেজ এবং মোট ভোটারের বিরাট একটি অংশ যাদেরকে নীরব ভোটার বলা হচ্ছে, তাদের সিদ্ধান্ত আর নতুন ভোটারদের ভোটই পাল্টে দিতে পারে সব হিসাবনিকাশ।
আসন্ন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মোট ভোটার তিন লাখ ২১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ৪৪৪ জন ও মহিলা ভোটার এক লাখ ৫০ হাজার ২৮৮ জন। ২০১৩ সালের ১৫ জুন অনুষ্ঠিত সিলেট সিটির তৃতীয় নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন দুই লাখ ৯১ হাজার ৪৬ জন। সে হিসাবে গতবারের তুলনায় এবার ভোটার বেড়েছে ৩০ হাজার ৬৮৬ জন। এর মধ্যে ১৯ হাজার ২৬৩ জন পুরুষ ও ১১ হাজার ৪২৩ জন মহিলা।
২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে মোট ভোটকেন্দ্র ছিল ১২৭টি। এবারের নির্বাচনে সাতটি বাড়িয়ে ১৩৪টি করা হয়েছে। গতবার ভোট ক ৮৯৬টি থাকলেও এবার বাড়িয়ে করা হয়েছে ৯২৭টি।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ