বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথে বিভিন্ন মন্ডপ পরিদর্শনে শফিক চৌধুরী  » «   শারদীয় দুর্গা পূজা উপলক্ষে বিশ্বনাথে শফিক চৌধুরী’র বস্ত্র বিতরণ  » «   সিলেটে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির অনন্য উদাহরণ দূর্গাপূজা -পুলিশ সুপার  » «   পূজামন্ডপ পরিদর্শনে বিশ্বনাথ অনলাইন প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ  » «   বিশ্বনাথে সরকারি রাস্তার গাছ কর্তন  » «   বিশ্বনাথে জাতীয় পার্টি ও পরিবহণ শ্রমিকদের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধ নিস্পত্তি  » «   বিশ্বনাথে ‘ভূয়া নাগরিক সনদে’ নিয়োগকৃত শিক্ষকদের বাতিলের দাবীতে মন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি প্রদান  » «   বিশ্বনাথে বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে ইউএনও  » «   বিশ্বনাথে শিশু কন‌্যাকে অপহরণকালে জনতার হাতে আটক ১  » «   বিশ্বনাথে অজ্ঞাতনামা নারী হত্যা মামলা পুনঃতদন্তের জন্য ওসি’কে আদালতের নির্দেশ  » «   বিশ্বনাথে রামপাশা ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন  » «   স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত যমজ দুই ভাই মাফী ও শাফী  » «   আলোকিত দেশ গঠনে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই – প্রতিমন্ত্রী মান্নান  » «   বিশ্বনাথে ট্রাক ড্রাইভারকে মারধর করার অভিযোগ : এমপির বিরুদ্ধে মিছিল-পাল্টা মিছিল  » «   বিশ্বনাথে প্রবাসীর উদ্যোগে হুইল চেয়ার ও সেফটি জ্যাকেট বিতরণ  » «  

সিসিক নির্বাচনে হিসাবনিকাশ পাল্টে দিতে পারেন নতুন ভোটাররা

বিশ্বনাথনিউজ২৪ :: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার নতুন ভোটার হয়েছেন ৩০ হাজার ৬৮৬ জন। এই নতুন ভোটাররাই পাল্টে দিতে পারেন জয়-পরাজয়ের হিসাবনিকাশ। বিশেষ করে মেয়র পদে তাদের বেশির ভাগ ভোট যিনি টানতে পারবেন জয়ের সম্ভাবনা তারই বেশি! এমনটি মনে করেন অনেকেই। তাদের ভাষ্য, নতুন ভোটারদের প্রায় সবারই বয়স কম। প্রথম ভোটার হওয়ায় তারা ব্যাপক উৎসাহে ভোট দিতে যান। এবার নতুন ভোটারদের ৯০ শতাংশ ভোট কাস্ট হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
সিলেট সিটিতে এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন সাতজন। তাদের পাঁচজন দলীয়, একজন স্বতন্ত্র ও একজন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। গত নির্র্বাচনে ১৮ দল ও ১৪ দলের প্রার্থীর মধ্যে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। বিজয়ী হন ১৮ দলের প্রার্থী। এবার বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলের কোনো একক প্রার্থী নেই। সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে এবারো আওয়ামী লীগ মনোনীত করেছে। পক্ষান্তরে ২০ দলের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ায় বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীকে লড়ছেন সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও টেবিল ঘড়ি প্রতীকে প্রার্থী হয়েছেন নগর জামায়াতের আমির অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের। আরিফকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষুব্ধ নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম নাগরিক কমিটির ব্যানারে বাসগাড়ি প্রতীক নিয়ে লড়ছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে প্রার্থী হওয়ায় গত মঙ্গলবার তাকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
সিলেট নগরীতে সাংগঠনিকভাবে বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ শক্তিশালী। তবে সমর্থক সংখ্যার দিক দিয়ে এগিয়ে বিএনপি। ব্যক্তিগতভাবে জনপ্রিয় থাকার কারণে অতীতে টানা দুইবার মেয়র ছিলেন আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। দুই দশকেরও বেশি সময় থেকে সিলেট সিটিতে জামায়াত পৃথকভাবে নির্বাচনে অংশ নেয়নি। সাংগঠনিকভাবে বিএনপির চেয়ে শক্তিশালী হলেও সিলেটে জামায়াতের দলীয় ভোট কত! এ নিয়ে নানা মহলে রীতিমতো গবেষণা চলছে। তিন দলেরই প্রার্থী আশাবাদী তারা বিজয়ী হবেন। তবে নির্বাচনে দলীয় ভোট ছাড়াও প্রার্থীদের ব্যক্তিগত ইমেজ এবং মোট ভোটারের বিরাট একটি অংশ যাদেরকে নীরব ভোটার বলা হচ্ছে, তাদের সিদ্ধান্ত আর নতুন ভোটারদের ভোটই পাল্টে দিতে পারে সব হিসাবনিকাশ।
আসন্ন সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার মোট ভোটার তিন লাখ ২১ হাজার ৭৩২ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৭১ হাজার ৪৪৪ জন ও মহিলা ভোটার এক লাখ ৫০ হাজার ২৮৮ জন। ২০১৩ সালের ১৫ জুন অনুষ্ঠিত সিলেট সিটির তৃতীয় নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন দুই লাখ ৯১ হাজার ৪৬ জন। সে হিসাবে গতবারের তুলনায় এবার ভোটার বেড়েছে ৩০ হাজার ৬৮৬ জন। এর মধ্যে ১৯ হাজার ২৬৩ জন পুরুষ ও ১১ হাজার ৪২৩ জন মহিলা।
২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে মোট ভোটকেন্দ্র ছিল ১২৭টি। এবারের নির্বাচনে সাতটি বাড়িয়ে ১৩৪টি করা হয়েছে। গতবার ভোট ক ৮৯৬টি থাকলেও এবার বাড়িয়ে করা হয়েছে ৯২৭টি।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ