প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা
বুধবার, ১৫ আগষ্ট, ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথে রামপাশা-বৈরাগী-সিংগেরকাছ বাজার সড়কের বেহাল দশা : জনদূর্ভোগ  » «   বিশ্বনাথে জাতীয় শোক দিবসে পুষ্পস্তবক অর্পন ও র‌্যালী  » «   শোকাবহ ১৫ আগস্ট আজ  » «   বিশ্বনাথে রাস্তায় গেইট নির্মাণ নিয়ে দু’পক্ষের বিরোধ  » «   বিশ্বনাথ ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে প্রশাসনিক অনুমোদন  » «   শিক্ষা প্রতিষ্টানে মাদক বিরোধী কমিটির আলোচনা সভা  » «   বিশ্বনাথে উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা  » «   বিশ্বনাথে ব্রাক এর ‘উপজেলা মাইগ্রেশন ফোরাম মিটিং’ অনুষ্ঠিত  » «   দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে আ’লীগের বিকল্প নেই -শফিক চৌধুরী  » «   পবিত্র হজ্ব পালন করতে স্বপরিবারে সৌদি আরব গেলেন মিছবাহ উদ্দিন  » «   বিশ্বনাথে উদ্ধারকৃত ২২টি গরু সনাক্ত করতে থানায় জনতার ভিড়  » «   সিংগেরকাছ পাবলিক বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজে নবীণ বরণ  » «   বিশ্বনাথে জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা  » «   বিশ্বনাথে স্বামীর হাতুড়ির আঘাতে স্ত্রী নিহতের ঘটনায় মামলা দায়ের  » «   বিশ্বনাথে ‘পরিচ্ছন্ন ও সবুজ জনপদ’ কার্যক্রমের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক  » «  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সংবর্ধনা

লন্ডন প্রতিনিধি :: লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা দিয়েছে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপ আওয়ামী লীগ। ২১ এপ্রিল শনিবার লন্ডনের স্থানীয় সময় বেলা একটায় ওয়েস্টমিনিস্টারে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের শুরুতে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন দলের নেতাকর্মীরা। প্রধানমন্ত্রীর আগমনের সাথে সাথে সভাস্থলে নেতাকর্মীদের মাঝে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। প্রধানমন্ত্রীকেও এসময় উৎফুল্ল দেখা যায়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপ আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মানুষ কী পেলো, কী খেলো তাতে বিএনপির কিছু যায়-আসে না। তাদের আসল কাজ মানুষের সম্পদ কেড়ে নিয়ে নিজেদের সম্পদশালী করা। দুর্নীতি না করলে শূণ্য থেকে অত দামী-দামী গাড়ি, দামী বাড়ি কীভাবে আসে, সেটাই বড় প্রশ্ন।

প্রবাসীদের অবদান সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের ভূমিকা অপরিসীম। আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার বিরুদ্ধে প্রবাসীরাই প্রথম বিদেশে আন্দোলন গড়ে তুলেছিলেন।

বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমানের সমালোচনা করে বলেন, ভাঙা স্যুটকেস কি জাদুর বাক্স হয়ে গিয়েছিলো? সেখান থেকে লঞ্চ এলো, ইন্ড্রাস্ট্রি বেরোলো, ব্যাংকের মালিক হলো, আর সেই ছেড়া গেঞ্জির থেকে ফ্রেঞ্চ স্টিফন বেরোলো, কত রঙ্গ তামাশা আমরা বাংলাদেশে দেখলাম। বাংলাদেশের মানুষ খাবার পায়, খাবার পায়না তার ঠিক ঠিকানা নেই, কিন্তু নিজেদের বিলাস-বেশ, সাজ পোশাক সেগুলো সব ঠিক ছিলো। খালেদা জিয়ার মুক্তি চাইলে বিএনপিকে আইনী প্রক্রিয়ায় যেতে হবে, নয়তো রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অল্প সময়ের মধ্যে ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। এমন নজির পৃথিবীর আর কোনো দেশে নেই।’

২৫তম কমনওয়েলথ সম্মেলনে যোগ দিতে গত ১৭ এপ্রিল থেকে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ