শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ ফাল্গুন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথ ব্লাড সোসাইটি’র সেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালিত  » «   বিশ্বনাথে সাজ্জাদুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালন  » «   সবাইকে শতভাগ খাঁটি দেশ প্রেমিক হতে হবে -শফিক চৌধুরী  » «   শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় বিশ্বনাথে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস পালন  » «   বিশ্বনাথে গাড়ি দূর্ঘটনায় যুবক নিহত  » «   বিশ্বনাথের রামপাশায় তাফসীরুল কুরআন সংস্থা’র উদ্যেগে ফ্রি খতনা প্রদান  » «   বিশ্বনাথে ১৩২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন সম্পন্ন  » «   উপজেলা নির্বাচন : বিশ্বনাথের ৭ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল, ১৫ প্রার্থীর বৈধ  » «   বিশ্বনাথের ১০টি হাওর-খাল পুনঃখননের দাবিতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান  » «   বিশ্বনাথে সিদ্ধ বকুলতলায় অন্তর্ধান মহোৎসবে মানুষের ঢল  » «   বিশ্বনাথে শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ড্রেস-ব্যাগ-ছাতা বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরী  » «   বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৩ পদে ২২ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল  » «   বিশ্বনাথে ভাইস-চেয়াম্যান প্রার্থী জুবেল আহমদের মনোনয়নপত্র জমা  » «   বিশ্বনাথে ভাইস-চেয়াম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল আহমদ  » «   বিশ্বনাথে চেয়ারম্যান প্রার্থী সুহেল আহমদ চৌধুরীর মনোনয়নপত্র জমা  » «  

আজ পবিত্র লাইলাতুল মিরাজ

বিশ্বনাথনিউজ২৪:: পবিত্র লাইলাতুল মিরাজ বা মিরাজের রজনী আজ। এ রাতে মহানবী হজরত মুহাম্মাদ সা: প্রথমে কাবা থেকে জেরুসালেমে অবস্থিত বায়তুল মুকাদ্দাস বা মসজিদুল আকসায় গমন করেন এবং সেখানে তিনি হজরত আদম আ: থেকে শুরু করে হজরত ঈসা আ:সহ সব নবী ও রাসূলকে নিয়ে একটি জামাতে ইমামতি করেন। অতঃপর তিনি বিশেষ বাহন বোরাকে চড়ে ঊর্ধ্বলোকে গমন করেন। ঊর্ধ্বাকাশে সিদরাতুল মুনতাহায় তিনি আল্লাহর ‘দিদার’ লাভ করেন। এ সফরে ফেরেশতা জিবরাইল আ: তার সফরসঙ্গী ছিলেন। পবিত্র কুরআনের ১৭ নম্বর সূরা বনি ইসরাইলের শুরুতেই এ বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে। ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও যথাযথ মর্যাদায় মুসলিম জাহানের সাথে এ দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরাও আজ কুরআনখানি, নফল সালাত, জিকির আসকার, ওয়াজ মাহফিল, দোয়া-দরুদ পাঠ ও বিশেষ মুনাজাতের মাধ্যমে পবিত্র শবে মিরাজ পালন করবেন।
মিরাজ শব্দটি আরবি, যার অর্থ ঊর্ধ্বারোহণ। পারিভাষিক অর্থে নবুওয়াতের একাদশ সালের ২৭ রজবের বিশেষ রাতের শেষ প্রহরে হজরত মুহাম্মাদ সা: হজরত জিব্রাঈল আ:-এর সাথে আল্লøাহর নির্দেশে তার খাস রহমতে বায়তুল্লাহ থকে বায়তুল মুকাদ্দাস পর্যন্ত ‘বোরাকে’ ভ্রমণ, অতঃপর সেখান থেকে বিশেষ বাহনের মাধ্যমে সপ্ত আসমান পেরিয়ে আরশে আল্লাহর সান্নিধ্যে গমন ও আবার বায়তুল মুকাদ্দাস হয়ে বোরাকে আরোহণ করে প্রভাতের আগেই মক্কায় নিজ গৃহে প্রত্যাবর্তনের ঘটনাকে মিরাজ বলা হয়।
এ ছিল আল্লাহ তায়ালার মহান কুদরত, অলৌকিক নিদর্শন, নবুওয়াতের সত্যতার পে এক বিরাট আলামত। জ্ঞানীদের জন্য উপদেশ, মুমিনদের জন্য প্রমাণ, হেদায়েত, নেয়ামত, রহমত, মহান আল্লাহর একান্ত সান্নিধ্যে হাজির হওয়া, ঊর্ধ্বালোক সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান অর্জন, অদৃশ্য ভাগ্য সম্পর্কে বিশেষ জ্ঞান লাভ, ইহকাল ও পরকাল সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন, স্বচে জান্নাত-জাহান্নাম অবলোকন, নভোমণ্ডল পরিভ্রমণ ও সর্বোপরি এটিকে একটি অনন্য মুজিযা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা।
এ রাত্রিতে উম্মতে মুহাম্মাদির জন্য প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ করা হয়। ফলে এটা খুবই ফজিলতের রাত্রি।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ