সোমবার, ২৫ মার্চ, ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ চৈত্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ |
সর্বশেষ সংবাদ
বিশ্বনাথের মারুফ হোসেনের এমবিএ ডিগ্রী অর্জন  » «   উত্তর বিশ্বনাথ আমজদ উল্লাহ ডিগ্রি কলেজে মোটিভেশন সভা  » «   নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার প্রতিবাদে বিশ্বনাথে মানববন্ধন  » «   বিশ্বনাথে ‘আলোকিত খাজাঞ্চী’ ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন  » «   বিশ্বনাথে খাজাঞ্চী স্টেশন স্পোটিং ক্লাব’র ৮ম ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল সম্পন্ন  » «   বিশ্বনাথে হিরামন সমাজ কল্যাণ স্পোটিং ক্লাব’র ফুটবল টুর্নামেন্ট সম্পন্ন  » «   বিশ্বনাথের খাজাঞ্চীতে ৮ম ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল আজ  » «   বিশ্বনাথে প্রয়াত প্রভাত বৈদ্যের স্বরণে কৃষক লীগের শোক সভা  » «   বিশ্বনাথে শতাধিক প্রতিবন্ধীর মাঝে প্রবাসীর অর্থ বিতরণ  » «   স্পেশাল অলিম্পিকে সোনা জিতলেন বিশ্বনাথের তানভীর  » «   কোরিয়ার লটারিতে বিজয়ী হলেন বিশ্বনাথের সাইফ উদ্দিন  » «   বিশ্বনাথে খাজাঞ্চীতে ৩য় টি-টোয়েন্টি ইউনিয়ন লীগ সম্পন্ন  » «   বিশ্বনাথবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানালেন আলতাব হোসেন  » «   বিশ্বনাথ উপজেলাবাসীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন মিছবাহ উদ্দিন  » «   বিশ্বনাথে আ’লীগ সমর্থিত জুলিয়া বেগম মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত  » «  

পোশাকে ব্যক্তিত্ব

4b6bae589de98c1d5956ecf0146b7d79_XLপোশাক ও ব্যক্তিত্ব একে অপরের সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বরঞ্চ আপনার ব্যক্তিত্ব ফুটিয়ে তুলতে উপযোগী পোশাকই কাফি। কারণ মুহূর্তের সাক্ষাতে আপনার ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে কেউ বুঝতে পারবে না। আপনার পোশাক আপনার রুচির আয়না। আবার পোশাক যে সবসময় নতুন আর হাল ফ্যাশানের হতে হবে এমনও কোন মানে নেই। একটু সচেতন হলেই সবদিক ঠিক রেখেই নির্বাচন করতে পারেন নিজের পোশাক।

♦ পোশাক পুরোনো হতে পারে; কিন্তু কখনও যেন নোংরা না হয়। ঝকঝকে পরিষ্কার, মাড় দেওয়া (পোশাক বুঝে), আয়রন করা পরিপাটি পোশাক পরুন।

♦ কাজের সঙ্গে মানানসই ও আরামদায়ক পোশাক পরুন। কাজের চেয়ে পোশাক যেন বেশি গুরুত্ব না পায়। পোশাক যেন আপনার সহকর্মীদের সঙ্গে এমন ব্যবধান তৈরি করে না দেয়, যা দলগত কাজে বাধা হয়ে দাঁড়ায়।

♦ আপনার পদের অন্য সহকর্মীরা কী ধরনের পোশাক পরছেন খেয়াল করুন। পোশাক নিয়ে প্রতিযোগিতায় নামবেন না। নিজের ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী স্বতন্ত্র অবস্থান তৈরিতে পোশাক নির্বাচন করুন।

 

♦ পোশাকের সঙ্গে আছে নানা অনুষঙ্গ, যেমন—অলংকার, ঘড়ি, জুতা, সুগন্ধি, চুলের কাটিং, মেকআপসহ অনেক কিছু। সঙ্গে থাকে আরও ব্যবহার্য জিনিসপত্র, যেমন—ছাতা, ক্যাপ, ব্যাগ ইত্যাদি। এগুলো সঠিকভাবে নির্বাচন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষ করে চুলের কাটিং, অলংকার ও সুগন্ধি। এ সব কিছুই পোশাকের সঙ্গে রুচিশীল এবং আপনার ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মানানসই হওয়া দরকার।

♦ পর পর দুই দিন একই পোশাক পরা এড়িয়ে চলুন। এতে যেমন নতুনত্ব আসে না, তেমনি থাকে না বৈচিত্র্য। একেক দিন একেক পোশাক ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে পরুন।

♦ অন্যকে অনুসরণ না করে চেষ্টা করুন নিজে পোশাক নির্বাচন করতে। এমনভাবে করুন, যাতে অন্যরা আপনাকে অনুসরণ করে। এ প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করতে হলে ফ্যাশন, প্রতিষ্ঠান ও আপনাকে কেমন লাগবে—এই তিনটি বিষয়ে আপনাকে আসলেই দক্ষ হতে হবে।

♦ নতুন পোশাক পরে আপনাকে কেমন লাগছে, তার সঠিক মতামত সংগ্রহ করুন। সে অনুযায়ী পরবর্তী পোশাক নির্বাচন করুন। পোশাক নির্বাচনে প্রয়োজনবোধে প্রশিক্ষণও নিতে পারেন, যা আপনার দেহের গঠন ও ত্বকের রং অনুযায়ী অফিস পোশাক, পার্টি পোশাক, ভ্রমণ পোশাক, ঋতুভেদে পোশাক ইত্যাদি বিষয়ে আপনাকে আরও আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে।

am-accountancy-services-bbb-1

সর্বশেষ সংবাদ